আজ ৩১শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভারতের বিপক্ষে ‘কাউন্টার অ্যাটাক’ করার পরামর্শ আলফাজের

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক,
ঢাকায় ২০০৩ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনাল। ৭৭ মিনিটে রোকনুজ্জামান কাঞ্চনের গোলে ভারতের বিপক্ষে এগিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। চার মিনিট পরেই সেই গোল শোধ দেন আলবিটো ডি’চুনহা। খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে।

তখনকার সময়টা ছিল গোল্ডেন গোলের। টাইব্রেকারের আগে কোনো দল যদি গোল পেত, তাহলে তারাই হতো জয়ী। সেই নিয়মে ৯৮ মিনিটে গোল করে ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশকে সাফের ফাইনালে তোলেন মতিউর মুন্না। পরে ফাইনালে মালদ্বীপকে টাইব্রেকারে হারিয়ে এখন পর্যন্ত একমাত্র সাফ জিতেছিলেন আলফাজ আহমেদ-আরিফ খান জয়রা।

ভারতের বিপক্ষে এরপরের ১৮ বছরে আরও আটবার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ। কয়েক ম্যাচে এগিয়ে থেকে জয়ের কাছাকাছিও পৌঁছে গিয়েছিলেন বাংলাদেশের ফুটবলাররা। কিন্তু শেষ সময়ের গোলে হয় ভারত ম্যাচটা ড্র করেছে কিংবা ছিনিয়ে নিয়েছে জয়। ১৮ বছরে আট দেখায় প্রতিবেশীদের বিপক্ষে আর জয়ের স্বাদ পাওয়া হয়নি লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের।

মালে জাতীয় স্টেডিয়ামে সাফের গ্রুপ পর্বে আজ বিকেল ৫টায় আবারও ভারতের সঙ্গে দেখা হচ্ছে বাংলাদেশের। ২০১৯ সালে ভারতকে সল্টলেকে তাদের দর্শকদের সামনেই অল্পের জন্য হার উপহার দিতে না পারার আক্ষেপ এখনো আছে জামাল ভূঁইয়াদের। জয় না পাওয়ার কষ্টটা আজ মালদ্বীপে ভুলতে চাইছে অস্কার ব্রুজোনের দল। কাউন্টার অ্যাটাক আর কোচের পরিকল্পনাগুলো কাজে লাগাতে পারলে ভারতের বিপক্ষে অধরা জয়টা আজ পাওয়া অসম্ভব কিছু নয় বলে মনে করেন সাবেক স্ট্রাইকার আলফাজ আহমেদ।

২০০৩ সালের সাফজয়ী দলের অপরিহার্য সদস্য ছিলেন আলফাজ। গ্রুপ পর্বে নেপালের বিপক্ষে ছিল একটি গোলও। ভারতের বিপক্ষে জামালদের জন্য তাঁর পরামর্শ, ‘কোচের অবশ্যই একটা পরিকল্পনা আছে। ভারত বেশি বেশি গোল করতে চাইবে। সুযোগটাকে কাজে লাগাতে হবে। যদি আমরা কাউন্টার অ্যাটাকগুলো কাজে লাগাতে পারি, তাহলে ভারতের বিপক্ষে জয় পাওয়া সম্ভব।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ