আজ ৩১শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কক্সবাজারে নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ২, পাঁচ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ

Spread the love

কক্সবাজার প্রতিনিধি,
কক্সবাজারের মহেশখালী ও কুতুবদিয়ায় ইউপি নির্বাচনে সহিংসতায় দুজন নিহত হয়েছেন। আজ সোমবার ভোটগ্রহণকালে এসব ঘটনা ঘটে। এরপর মহেশখালী ও কুতুবদিয়ার মোট পাঁচ কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে।

মহেশখালী কুতুবজোম ইউপি নির্বাচনে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে আবুল কালাম (৩২) নামে একজন নিহত হয়েছেন। আজ সোমবার সকাল ১০টায় কুতুবজোম দাখিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

মহেশখালী থানার ওসি মো. আবদুল হাই এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ সময় চারজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। নিহত আবুল কালাম স্বতন্ত্র প্রার্থী মোশাররফ হোসেন খোকনের সমর্থক ছিলেন। আহত অবস্থায় আবুল কালামকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জুলকার নাঈম বলেন, সংঘর্ষের ঘটনার পর পর পরই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। সংঘর্ষের ঘটনায় তিন কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ আপাতত বন্ধ রয়েছে। কেন্দ্রগুলো হলো- কুতুবজোম দাখিল মাদ্রাসা, ছলর বাপর পাড়া মাদ্রাসা কেন্দ্র ও তাজিয়াকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র।

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামানের নেতৃত্বে বিপুলসংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা বিভিন্ন কেন্দ্রে কঠোর অবস্থান নিয়েছে।

এর আগে মহেশখালী পৌরসভার শান্তিপূর্ণভাবে ভোট প্রদান করছেন ভোটাররা। এক পৌরসভা ও তিন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সকাল ৮টায় শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। ১ নম্বর ওয়ার্ডের পুটিবিলা ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে পুরুষ ভোটারের চেয়ে নারী ভোটারের উপস্থিতি ছিল বেশ লক্ষণীয়। পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের রাখাইনপাড়া কেন্দ্রেও ভোটাদের সরব উপস্থিতি ছিল। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। র‍্যাব, পুলিশ, আনসার ভিডিপির পাশাপাশি টহল দিচ্ছে বিজিবি।

মহেশখালীতে ইউপি নির্বাচনে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় একজন মারা গেছেনমহেশখালীতে ইউপি নির্বাচনে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় একজন মারা গেছেন। ছবি: আজকের পত্রিকা
এক পৌরসভা ও তিন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের নিরাপত্তায় ৬ প্লাটুন বিজিবি, তিনটি র‍্যাবের স্ট্রাইকিং ফোর্স, ৩০০ পুলিশ সদস্য, ৬০০ আনসার ভিডিপির সদস্যসহ আইনশৃঙ্খলায় দায়িত্ব পালন করছেন। এ ছাড়া ১৮ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্বে রয়েছেন। এর মধ্যে পৌরসভার ৯ কেন্দ্রে ৯ জন এবং ৩ ইউনিয়নে রয়েছেন ৮ জন।

সরেজমিনে হোয়ানক ইউনিয়নের বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে দেখা যায়, সকাল থেকে ভোটাররা ব্যাপক উৎসমুখর পরিবেশে ভোট দিচ্ছেন। তবে কিছু কিছু কেন্দ্রে নানা অভিযোগ তুলে বিক্ষিপ্ত ঘটনা ঘটে।

মাতারবাড়ি ইউনিয়ন কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা রশিদ আহমদ (৬৫) বলেন, ৮ বার ভোট দিয়েছি। এখানকার প্রার্থীরা সবাই আওয়ামী লীগ। তবে কে নির্বাচিত হবে সেটি বলা যাচ্ছে না।

এ কেন্দ্রের কামাল হোসেন নামের এক এজেন্ট অভিযোগ করে বলেন, দুটি বুথ দিয়ে ভোট শুরু হলেও কিছুক্ষণ পর একটি করে ফেলা হয়েছে।

মাতারবাড়ি ইউনিয়নের ১ নম্বর রাজঘাট কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলছে। আশা করছি বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারদের উপস্থিতি আরও বাড়বে বলে তিনি আশা করছেন।

সাইরার ডেইল ৮ নম্বর ওয়ার্ডের প্রিজাইডিং অফিসার জিয়াউর রহমান বলেন, আজ সকাল থেকে সুশৃঙ্খলভাবে ভোটাররা নিজেদের ভোট পছন্দের প্রার্থীকে প্রয়োগ করছেন। সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ২০০ ভোট কাস্টিং হয়েছে।

কুতুবদিয়ায় নির্বাচনী সহিংসতা

নির্বাচনী সহিংসতায় কুতুবদিয়া উপজেলার বড়ঘোপ ইউনিয়নের তিলককাটা কেন্দ্রে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংঘর্ষের সময় পুলিশের গুলিতে একজন নিহত হয়েছেন। নিহত আবদুল হালিম (৪৫) ওই কেন্দ্রের নৌকা প্রতীকের এজেন্ট। এখানে আরও তিনজন গুলিবিদ্ধ হন। বেলা ১১ টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ছাড়া উপজেলার উত্তর ধুরং, লেমশীখালী ও বড়ঘোপ ইউনিয়নের কয়েকটি কেন্দ্রে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের কুতুবদিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের লম্বাবিল মাদ্রাসা ও উংচি প্রাং প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ব্যালট ছিনতাইয়ের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বেলা ১২ টার দিকে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়। এসময় টেকনাফের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ইরফানুল হক চৌধুরীকে আটকে রাখে ক্ষুব্ধ লোকজন। কয়েক শ এলাকাবাসী টেকনাফ-কক্সবাজার সড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আবু সুফিয়ান ও টেকনাফের ইউএনও পারভেজ চৌধুরী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ইউএনও বলেন, প্রার্থীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে কেন্দ্র দুটির ভোট স্থগিত করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ