আজ ২১শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৬ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ময়মনসিংহে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি:

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন ময়মনসিংহের স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা-জনতাসহ উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা।

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার সোহেলি শারমিনের প্রত্যাহারের দাবিতে তারা সড়ক অবরোধ করেন।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা অভিযোগ করেন- ভালুকা থেকে নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য কাজিম উদ্দিন আহমেদ ধনুর বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ও কটুক্তি করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সোহেলি শারমিন। এ ছাড়াও তিনি সরকারি টাকা আত্মসাৎ এবং হাসপাতালের স্টাফ, রোগী ও স্বজনদের সঙ্গে অসদাচরণসহ নানা অনিয়ম করেছেন।

বুধবার দুপুরে ভালুকা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও উপজেলার ওভার ব্রিজ সংলগ্ন ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত ঘণ্টাব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন মুক্তিযোদ্ধা ও সন্তান কমান্ডের নেতৃবৃন্দরা।

কর্মসূচি চলাকালে মহাসড়কের দুই পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে প্রশাসনের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের আশ্বাসে কর্মসূচি তুলে নেওয়া হয়। ডা. সোহেলি শারমিনের অপসারণসহ তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া মুক্তিযোদ্ধারা। অন্যথায় কঠোর আন্দোলনে হুশিয়ারী দেওয়া হয়।

বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী মোহাম্মদ ইউনূস আলী শেখ বলেন, যুদ্ধকালীন সাব-সেক্টরের দায়িত্বে ছিলেন মেজর আফসার উদ্দিন। তার ছেলে সংসদ সদস‌্য কাজিম উদ্দিন আহম্মেদ ধনু। তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন ডা. সোহেলি শারমিন। এটি কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। তার অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আমরা রাজপথ ছাড়ব না।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের নেতা আশিকুর রহমান আশিক বলেন, ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সোহেলি শারমিন যোগদানের পর থেকে হাসপাতালকে ঘুষের স্বর্গরাজ্য করে তুলেছেন। সাধারণ মানুষকে তিনি মানুষ হিসেবে গণ্য করেন না। রোগীদের সঙ্গে খুবই খারাপ আচরণ করেন।

ভালুকা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবুল কালাম আজাদ বলেন, সংসদ সদস‌্য কাজিম উদ্দিন আহম্মেদ ধনু ভালুকার মাটি ও মানুষের নেতা। হাসপাতালের বিভিন্ন অনিয়ম দুর্নীতির কথা বলায় ডা. সোহেলি শারমিন নানাভাবে অপপ্রচার করছে। তাই ডা. সোহেলি শারমিনের অপসারণসহ বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে আন্দোলন করছি।

ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সোহেলি শারমিন বলেন, করোনাকালীন ময়মনসিংহে এ হাসপাতাল সর্বোচ্চ সেবা দিয়েছে মানুষকে। স্বার্থে আঘাত লাগায় একটি পক্ষ আমার বিরুদ্ধে লেগেছে। কর্তৃপক্ষ চাইলে আমি ভালুকায় থাকব, না চাইলে চলে যাব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ