আজ ৫ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বিএনপির চেয়েও এগিয়ে বিদ্রোহীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত স্থানীয় সরকারের পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ কয়েকটি দল অংশ নিলেও মাঠে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয় নৌকা ও ধানের শীষের প্রার্থীর মধ্যে। পাঁচ ধাপে অনুষ্ঠিতব্য এ নির্বাচনের চার ধাপের ভোটে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের জয়জয়কার। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। বিএনপির অবস্থান তৃতীয়। সহিংসতা, অনিয়ম, বর্জনের এ ভোটের ফল বিশ্লেষণে দেখা গেছে, এ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত চার ধাপে ১৯৮ পৌরসভায় আওয়ামী লীগ ১৫৬, স্বতন্ত্র ৩০ এবং বিএনপি ১০টিতে মেয়র পদে জয় লাভ করেছে।

প্রথম ধাপে ২৩ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের নৌকার প্রার্থীদের মধ্যে ১৮ জন, বিএনপির ধানের শীষের ২ জন এবং ৩ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী মেয়র পদে বিজয়ী হন। দ্বিতীয় ধাপে ৫৯ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের ৪৫, বিএনপির ৪, জাতীয় পার্টির ১ জন, জাসদের ১ জন ও ৮ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হন। দলীয় প্রতীকে এ ভোটে মেয়র পদে তৃতীয় ধাপে ৬৩ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের ৪৬, বিএনপির ৩ ও স্বতন্ত্র ১৪ জন বিজয়ী হন। চতুর্থ ধাপে ৫৫ পৌরসভায় ভোট হলেও দুটিতে অনিয়ম ও সহিংসতার কারণে ফল স্থগিত করা হয়েছে। বাকি ৫৩ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের ৪৬, বিএনপির একজন ও ৫ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী হন।

ফল বিশ্লেষণে আরও জানা গেছে, চার ধাপে ভোট হওয়া ১৯৮টি পৌরসভার মধ্যে ৮৮ পৌরসভায় ভোট পাওয়ার দিক থেকে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করতে পারেননি বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা। এর মধ্যে প্রথম ধাপে ১৫টি, দ্বিতীয় ধাপে ২৮টি, তৃতীয় ধাপে ২৫টি এবং চতুর্থ ধাপে ২০টি পৌরসভা রয়েছে। তবে ১০৩টিতে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা। এর মধ্যে প্রথম ধাপে ৯টি, দ্বিতীয় ধাপে ২৭টি, তৃতীয় ধাপে ৩৬টি ও চতুর্থ ধাপে ৩৩টি পৌরসভা রয়েছে।

করোনা মহামারীর মধ্যে এবার পাঁচ ধাপে পৌরসভায় নির্বাচন করছে ইসি। এর মধ্যে ২৮ ডিসেম্বর, ১৬ জানুয়ারি ৩০ জানুয়ারি ও ১৪ ফেব্রুয়ারি চার ধাপের ভোট শেষ হয়েছে। এসব ভোটে গোলযোগ-সহিংসতা, অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে। প্রথম ধাপে ৬৫ শতাংশ, দ্বিতীয় ধাপে ৬২ শতাংশ, তৃতীয় ধাপে ৭০.৪২ শতাংশ এবং চতুর্থ ধাপে ৬৬ শতাংশ ভোট পড়েছে। জানা গেছে, চতুর্থ ধাপে ৫৫ পৌরসভায় মেয়র পদে ১৪,৫৪,৪৮০ জন ভোটারের মধ্যে ৯,৫৫,২৪০ জন ভোট দিয়েছেন। সে হিসেবে এ ধাপে ভোট পড়েছে ৬৫ দশমিক ৬৮ শতাংশ। সর্বোচ্চ ভোট পড়েছে বরিশালের বানারীপাড়ায় ৯২ দশমিক ৬০ শতাংশ এবং সর্বনিম্ন ৪৬ দশমিক ০৭ শতাংশ চট্টগ্রামের পটিয়ায়।

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পঞ্চম ধাপের ভোট হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ