আজ ৮ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

জয়ের প্রত্যয়ে মাঠে নামছে টাইগাররা!

Spread the love

ক্রীড়া প্রতিবেদক

একটা হার বদলে দিয়েছে অনেক কিছুই। টেস্ট সিরিজ শুরুর আগে খুব একটা পাত্তা দেওয়া হয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজকে! অথচ সে দলটির কাছে হেরে মাথা নিচু করে মাঠ ছেড়েছেন মুমিনুলরা। ওয়ানডে সিরিজ জয়ের পর চওড়া হাসি ছিল বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের মুখে। এখন বিষাদের ছায়া গ্রাস করেছে তাদের মনে। এমনটি কি হওয়ার কথা ছিল? চট্টগ্রাম টেস্টের চার দিন ডমিনিট করেছে বাংলাদেশ। শেষ দিনে ভোজবাজির মতো পাল্টে গেছে চিত্রনাট্য। কাইল মেয়ার্সের দানবীয় ডাবল সেঞ্চুরিতে মিরাজ, মুমিনুলের সেঞ্চুরি। জিততে জিততেও জেতা হলো না টাইগারদের। হার ৩ উইকেটে। তাই তো এবার সতর্ক বাংলাদেশ। আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া দ্বিতীয় টেস্টে জয় চান স্বাগতিকরা। মান বাঁচানোর ম্যাচে জয় ভিন্ন অন্য কিছু ভাবছেন না তারা।

বাঁ ঊরুর ইনজুরির কারণে সাকিব আল হাসান আগেই ছিটকে গেছেন। প্রথম টেস্টের শেষ তিন দিন দর্শক ছিলেন বাংলাদেশের অলরাউন্ডার। দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর আগে আরেকটি ধাক্কা খেয়েছেন স্বাগতিকরা! চোট ছিটকে দিয়েছে ওপেনার সাদমান ইসলামকে। সিরিজ বাঁচানোর টেস্টে তাই একাদশে

দুটি পরিবর্তন আসছে এটি নিশ্চিত। যতটুকু আভাস পাওয়া গেছে, তাতে সাদমানের জায়গায় সাইফ এবং সাকিবের জায়গায় ছয়ে সৌম্যকে খেলানোর প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। তবে একাদশে কয়জন পেসার বা স্পিনার রাখা হবে, সে বিষয়ে কিছুটা দিধাদ্বন্দ্বে টিম ম্যানেজমেন্ট। চট্টগ্রামের উইকেট স্পিনসহায়ক হবে ভেবে একাদশে চার স্পিনার ও একজন বিশেষজ্ঞ পেসার রেখেছিল বাংলাদেশ। তার পরও হারতে হয়েছে। শেষ দিনে বাংলাদেশের স্পিনারদের বেশ সাবলীলভাবেই খেলেছেন ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যানরা। এটিই চিন্তার কারণ।

যতটুকু জানা গেছে, তাতে দুজন বিশেষজ্ঞ পেসার ও দুজন স্পিনারকে খেলানোর সম্ভাবনা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে নাঈম হাসান পারবেন। মোস্তাফিজের সঙ্গে খেলানো হতে পারে তাসকিনকে। তবে বাংলাদেশের অধিনায়ক মুমিনুল হক জানিয়েছেন, একাদশ কেমন হবে তা কালকের (আজ) কন্ডিশন ও উইকেট দেখার পরই চূড়ান্ত করা হবে। তবে একাদশে যে পরিবর্তন আসতে চলেছে, তা নিশ্চিত করে বলেছেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক। গতকাল ভার্চুয়াল টেস্টপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল এটিও বলেছেন যে, একজন অধিনায়ক হিসেবে এ ম্যাচটি জেতার জন্য সবাই উদগ্রীব হয়ে আছে।

এদিকে বাংলাদেশের মতো জয়ে চোখ ওয়েস্ট ইন্ডিজেরও। সফরে এসে তারা ওয়ানডে সিরিজে ধবলধোলাই হয়েছে। তবে টেস্ট সিরিজটা তারা জিততে চান। প্রথম জয়টা তাদের অনুপ্রেরণা। ক্যারিবিয়ানরা জানেন, কাজটি সহজ হবে না। তার পরও আশা ছাড়ছেন না। বরং সিরিজ জিতে দেশে ফিরতে চান ব্রাথওয়েট, মেয়ার্সরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ