আজ ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শিক্ষার্থী ধর্ষণ-হত্যা: সাফায়েত রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় সাফায়েত জামিলের এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নিভানা খায়ের জেসী শুনানি শেষে রিমান্ডের আদেশ দেন।

গত ৪ ফেব্রুয়ারি সাফায়েত জামিলকে আদালতে হাজির করতে প্রোডাকশন ওয়ারেন্ট ইস্যুমহ ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদপুর থানার এসআই মো. সাজেদুল হক। আদালত আসামির উপস্থিতিতে রিমান্ড শুনানির জন্য রোববার দিন ধার্য করেন।

এদিন সাফায়েত জামিলকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। সাফায়েতের পক্ষে তার আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে এর বিরোধিতা করা হয়। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে এক দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

এর আগে গত ৪ ফেব্রুয়ারি আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন সাফায়েত জামিল। জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

৩১ জানুয়ারি ওই শিক্ষার্থীর দুই বন্ধু মর্তুজা রায়হান চৌধুরী ও নুহাত আলম তাফসীরের পাঁচ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে মর্তুজা রায়হান চৌধুরী রিমান্ড শেষে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। নুহাত আলমকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গত ৫ ফেব্রুয়ারি ফারজানা জামান নেহার ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, ২৮ জানুয়ারি ওই তরুণীকে অতিরিক্ত মদ পান করিয়ে ধর্ষণ করেন আসামি রায়হান। এ সময় অন্য আসামিরা সেখানে ছিলেন। ওই তরুণী গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে পরের দিন তাকে প্রথমে ইবনে সিনা ও পরে আনোয়ার খান মডার্ন মেডিক্যাল কলেজে হাসপাতালে ভর্তি করে। দুই দিন লাইফ সাপোর্টে থাকার পর ওই তরুণী মারা যান। ৩১ জানুয়ারি ৪ জনকে আসামি করে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন ওই তরুণীর বাবা। মামলায় অজ্ঞাত আরও একজনকে আসামি করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ