আজ ২১শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৬ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চা ভেবে বিষ পান করে শিশুর মৃত্যু

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:

বাড়ির পাশে খেলছিল দুই ভাই তাফছির ও স্বাধীন। খেলতে খেলতে আবর্জনার স্তুপ থেকে কুড়িয়ে পাওয়া যায় একটি বোতল।

বোতলে নাকি চা আছে! ছোট ভাই তাফছির চা ভেবে বোতলে মুখ দিয়ে পান করলো তরল পানীয়। সেই পানীয় পান করার পর অসুস্থ্য হয়ে পড়ে তাফছির।
এরপর নেয়া হয় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে। তবে সে পর্যন্ত আর জীবিত নেই তিন বছর বয়সী তাফছির।

পুলিশ ও চিকিৎসক জানিয়েছে কুড়িয়ে পাওয়া ওই বোতলে ছিল ঘাসমারা বিষের অস্তিত্ব।
মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার হাকিমপুর গ্রামে।

স্থানীয়রা জানায়, সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৪টার দিকে আলমডাঙ্গার হাকিমপুরের নৈশপ্রহরীর দুই ছেলে স্বাধীন (০৫) ও তাছফির (০৩) বাড়ির পাশে খেলা করছিল। এসময় কুড়িয়ে পাওয়া বোতলের পানীয় পান করার পর অসুস্থ্য হয়ে পড়ে তাছফির। হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের মা সাম্পতি বেগম বলেন, বড় ছেলে আমাকে জানায় যে ছোট ছেলে তাছফির কুড়িয়ে পাওয়া বোতলের পানি পান করেছে। তারপর থেকেই অসুস্থ্য হয়ে পড়েছে। পরে আমি তাছফিরের মুখে বিষের গন্ধ পাই। কুড়িয়ে পাওয়া বোতলের ভেতর থাকা পানীয় চা ভেবে খেয়েছে বলে জানায় তাছফির। ওই বোতলের পানি খেয়ে তাছফির অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, হাসপাতালে নেয়ার পর পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে শিশু তাছফিরকে মৃত ঘোষণা করা হয়। বিষাক্ত পানীয় পান করে বিষক্রিয়ায় তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) একরাম হোসেন জানান, কুড়িয়ে পাওয়া বোতলে ছিল ঘাসমারা বিষের অস্তিত্ব। ওই বিষ পান করেই মারা যায় তাছফির। পরিবারের কোন আপত্তি না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ