আজ ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মিূয়ানমার রোহিঙ্গাদের দ্রুত প্রত্যাবাসনে অঙ্গীকারবদ্ধ

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক:

মিয়ানমারের আন্তর্জাতিক সহযোগিতাবিষয়ক মন্ত্রী কাইয়া টিন বলেছেন, ২০১৭ সালে বাংলাদেশের সঙ্গে করা চুক্তি অনুযায়ী, মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন দ্রুত শুরু করতে অঙ্গীকারবদ্ধ। এছাড়া, বাংলাদেশসহ সব প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান ও পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিদ‌্যমান সমস্যা সমাধানে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ মিয়ানমার।

সম্প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.এ কে আব্দুল মোমেনকে লেখা চিঠিতে এসব কথা বলেছেন তিনি।

শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মিয়ানমারের মন্ত্রী উল্লেখ করেছেন, মিয়ানমার প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে পারস্পরিক অংশীদারত্বের ভিত্তিতে যেকোনো দ্বিপাক্ষিক বিষয়ের সমাধান করতে চায়। গত ১৯ জানুয়ারি চীন, মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যে ত্রিপক্ষীয় বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রোহিঙ্গাদের দ্রুত প্রত্যাবাসন শুরুর আশা ব্যক্ত করেছেন তিনি।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মতোই কাইয়া টিনও মনে করেন, করোনা মহামারির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন জাতির মধ্যে পারস্পারিক সংহতি ও সহযোগিতা প্রয়োজন। পারস্পরিক অলোচনার ভিত্তিতে ১৯৭৮ ও ১৯৯২ সালে রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত নেওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেছেন মিয়ানমারের মন্ত্রী।

কাইয়া টিন ড. এ কে আবদুল মোমেনের সুস্বাস্থ্য এবং বাংলাদেশের জনগণের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করেছেন। গত ১ জানুয়ারি চিঠি দেওয়ার জন্য ড. মোমেনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মিয়ানমারের মন্ত্রী। কাইয়া টিন ও ড. মোমেন একই সময়ে জাতিসংঘে নিজ নিজ দেশের স্থায়ী প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন এবং সে সময় তাদের মধ্যে ঘনিষ্টতা গড়ে উঠে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ