আজ ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

রোনালদোর রেকর্ডের রাতে জুভেন্টাসের স্বস্তির জয়

Spread the love

স্পোর্টস ডেস্ক:

জাতীয় দল ও ক্লাব মিলিয়ে সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ড স্পর্শ করেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এছাড়া ইতিহাসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে টানা ১৫ মৌসুমে কমপক্ষে ১৫ গোল করার রেকর্ডও গড়েছেন তিনি।

পর্তুগিজ উইঙ্গারের এমন অসামান্য কীর্তির রাতে স্বস্তির জয় পেয়েছে জুভেন্টাস। স্বস্তির কারণ, চলতি মৌসুমে খুঁড়িয়ে চলা তুরিনের বুড়িরা প্রথমবারের মতো টানা তিন জয় পেল।

রোববার রাতে ঘরের মাঠ আলিয়েঞ্জ স্টেডিয়ামে সাস্সুয়োলোর বিপক্ষে ৩-১ গোলে জিতেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। এই ম্যাচেই গোল করে অস্ট্রিয়া ও সেই সময়ের চেকোস্লোভাকিয়ার সাবেক স্ট্রাইকার ইয়োসেপ বিকানের পাশে বসেছেন রোনালদো।

দুজনেরই গোলসংখ্যা ৭৫৯টি করে। দুই গোল কম নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছেন ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি পেলে।

তবে রোনালদো তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকার কারণ ৭৫৯ গোল করতে রোনালদোর লেগেছে ১০৩৭ ম্যাচ, আর বিকন মাত্র ৪৯৫ ম্যাচে! তালিকার চারে আছেন বার্সার আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসি (৭৪৬ গোল)। এরপরের স্থানে আছেন আরেক ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি রোমারিও (৭৩৪ গোল)।

ম্যাচের শুরু থেকে প্রতিপক্ষের রক্ষণে বেশ কয়েকবার হানা দিলেও গোলের ঠিকানা খুঁজে পাচ্ছিল না জুভেন্টাস। উল্টো ৪৩তম মিনিটে চোট নিয়ে পাওলো দিবালা মাঠ ছাড়লে চাপে পড়ে যায় স্বাগতিকরা। কিন্তু একটু পর কপাল পোড়ে সাস্সুয়োলোর। জুভেন্টাসের ফেদেরিকো চিয়েসাকে ফাউল করে লাল কার্ড দেখেন মিডফিল্ডার পেদ্রো ওবিয়াং।

দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে গোছানো আক্রমণে গোলের দেখা পায় জুভেন্টাস। ডি-বক্সের অনেকটা বাইরে থেকে ডান পায়ের জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার দানিলো। অবশ্য এর ৩ মিনিট পরেই সতীর্থের পাসে জোরালো শটে সফরকারীদের সমতায় ফেরার গ্রেগোয়া দুফেল।

৭৫তম মিনিটে পোস্টের কাছ থেকে রোনালদোর শট ফেরান গোলরক্ষক। এর ৫ মিনিট পরেই র‍্যামজির গোলে এগিয়ে যায় জুভেন্টাস। বাঁ দিক থেকে সতীর্থের বাড়ানো বল জালে পাঠান এই ওয়েলস মিডফিল্ডার। অনেকটা সময় অপেক্ষার পর অবশেষে যোগ করা সময়ে গোলের দেখা পান রোনালদো। দানিলোর উঁচু করে বাড়ানো বল ধরে ডি-বক্সে ঢুকে নিখুঁত শটে বল জালে জড়ান পর্তুগিজ যুবরাজ। চলতি মৌসুমে এটা তার ১৫তম গোল। ২০০৬-০৭ মৌসুমে থেকেই প্রতি মৌসুমে কমপক্ষে ১৫টি করে গোল করে আসছেন তিনি, যে কীর্তি আর কোনো খেলোয়াড়ের নেই।

এই নিয়ে ১৬ ম্যাচে ৯ জয় ও ৬ ড্রয়ে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে চারে উঠেছে জুভেন্টাস। এক ম্যাচ বেশি খেলা সাস্সুয়োলো ২৯ পয়েন্ট নিয়ে আছে সাতে। আকই রাতে তোরিনোর বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতে ৪০ পয়েন্ট হয়ে গেছে শীর্ষে থাকা এসি মিলানের। আর রোমার সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করা ইন্টার মিলান ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে। রোমা ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে আছে তিনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ