আজ ২রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা যাচ্ছে মাদ্রাসা বোর্ডে

শিক্ষাঙ্গন ডেস্ক:

ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা যাচ্ছে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডকে এই সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। নির্দেশনা অনুযায়ী ২০২১ শিক্ষাবর্ষ থেকে মাদ্রাসার প্রাথমিক স্তরের এই সমাপনী পরীক্ষা নেবে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড।

এতদিন প্রাথমিক স্তরের পঞ্চম শ্রেণির প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীর পাশাপাশি এতদায়ি সমাপনী পরীক্ষা-কার্যক্রম পরিচালনা করতো প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। দুই পরীক্ষায় প্রায় ৩০ লাখ শিক্ষার্থী অংশ নিতো। চলতি বছরেও প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় ২৯ লাখ ৩ হাজার ৩৩৮ শিক্ষার্থীর অংশ নেওয়ার কথা ছিল। এরমধ্যে প্রাথমিক সমাপনীতে ২৫ লাখ ৫৩ হাজার ২৬৭ জন এবং ইবতেদায়ি সমাপনীতে ৩ লাখ ৫৫ হাজার ৩৭১ পরীক্ষার্থী রয়েছে।

প্রাথমিক স্তরের এই দুই পরীক্ষা গ্রহণে আলাদা বোর্ড গঠনের উদ্যোগ থাকলেও শেষ পর্যন্ত ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার কার্যক্রম কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগে ন্যস্ত ছিল।

প্রসঙ্গত, ২০০৯ সাল থেকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা চালু হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১০ সাল থেকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সঙ্গে ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা শুরু হয়। সেই থেকে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন পরিচালিত হয়ে আসছে।

২০১৯ সাল পর্যন্ত ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়েল অধীনে পরিচালিত হয়েছে। করোনার কারণে ২০২০ সালের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, ২০১৬ সালের ৩০ নভেম্বর কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ নামে একটি আলাদা বিভাগ সৃষ্টির পর থেকে মাদ্রাসা শিক্ষার কার্যক্রম কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে পরিচালিত হচ্ছে। তাই ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সব কার্যক্রম এই বিভাগ থেকে পরিচালনার জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অনুরোধ করা হয়। ইবতেদায়ি স্তর মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড সংশ্লিষ্ট হওয়ায় এই পরীক্ষা-সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে হওয়া উচিত।

এ বিষয়ে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান প্রফেসর কায়সার আহমেদ বলেন, সরকারের নীতিগত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে পদক্ষেপ নেবো। এ জন্য সব ধরনের প্রস্তুতিও রয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব ড. মো. আমিনুল ইসলাম খান বলেন, ইতোমধ্যে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডকে এই বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। এর মাধ্যমে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওপর চাপ কমবে বলেও তিনি মনে করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ