আজ ৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ফেসবুকের করা মামলার শুনানি ১৪ ডিসেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বাংলাদেশে ফেসবুক ডটকম ডট বিডির মালিকানা নির্ধারণে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের করা মামলার গ্রহণযোগ্যতার বিষয়ে আগামী ১৪ ডিসেম্বর শুনানির দিন ধার্য করেছেন আদালত। আজ মঙ্গলবার ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ শওকত আলী চৌধুরী নতুন এ দিন করেন।

এদিনই শুনানির দিন ধার্য ছিল। তবে আইনজীবী অসুস্থ থাকায় শুনানি পেছানোর জন্য সময় আবেদন করা হয়।

বাদীপক্ষের আইনজীবী এসএম আরিফুল ইসলাম বলেন, আজ মামলার গ্রহণযোগ্যতা ও ডোমেইন হস্তান্তর সংক্রান্ত সব কার্যক্রমের ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে করা আবেদনের ওপর শুনানি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ফেসবুকের মূল আইনজীবী ব্যারিস্টার মোকছেদুল ইসলাম অসুস্থ। তাই আমরা শুনানির জন্য সময় আবেদন করেছিলাম। আদালত সেই আবেদন মঞ্জুর করেন।

গত ২২ নভেম্বর ঢাকার জেলা জজ আদালতে এ মামলা দায়ের করা হয় ফেসবুকের পক্ষ থেকে। মামলায় ডোমেইনটির ক্রেতা এ ওয়ান সফটওয়্যার এবং এসকে শামসুল ইসলামকে বিবাদী করা হয়েছে। এই ডোমেইনটি যাতে হস্তান্তর করতে না পারে সে বিষয়ে নিষেধাজ্ঞার আবেদনও দেওয়া হয়েছে।

জানা যায়, ফেসবুক ডটকম হচ্ছে ফেসবুকের মূল ডোমেইন। তবে এর সঙ্গে প্রত্যেক দেশের নিজস্ব নামের এক্সটেনশন যোগ করেও ব্যবহার করা যায় ফেসবুক। বাংলাদেশে ফেসবুক ডটকম ডট বিডি দিয়ে তাই প্রবেশ করা যায় ফেসবুকে। তবে বাংলাদেশে শুধু ফেসবুক ডটকম নামেই ২০১০ সালের ১৪ জানুয়ারি ফেসবুকের মূল ডোমেইনটি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ টেলি যোগাযোগ কর্তৃপক্ষের (বিটিসিএল) কাছ থেকে পেটেন্টসহ কিনে নেয়।

এবার যখন কোডসহ ফেসবুক ডটকম ডট বিডি নামে ডোমেইন নিতে গিয়ে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বিপাকে পড়ে। কারণ এই নামটি ২০০৮ সালেই নিজেদের নামে নিবন্ধন করে রেখেছিলেন এ ওয়ান সফটওয়্যার ও এসকে শামসুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি। তাই ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশে কান্ট্রি কোডসহ নামটি নিবন্ধন্ধের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়।

এমতাবস্থায় এ ওয়ান সফটওয়্যারের কাছ থেকে এই ডোমেইন কেনার চেষ্টা করে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তবে এই ডোমেইনটির দাম ৬ মিলিয়ন ইউএস ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমান দাঁড়ায় প্রায় ৫১ কোটি টাকা। সেই ডোমেইনটি বিক্রির জন্য দেওয়া হয়েছে বিজ্ঞাপনও।

এমতাবস্থায় দফায় দফায় আইনি নোটিশ দিয়েও ডোমেইনটি কেনার বিষয়ে সামনের দিকে এগুতে পারেনি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তাই ফেসবুক ডটকম ডট বিডি ডোমেইনটি পেতে চূড়ান্তভাবে আইনি লড়াইয়েই নামে প্রতিষ্ঠানটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ