আজ ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

৬ষ্ঠ মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা পাচ্ছেন ফারুকী, দোলন ও শাহ আজিজ

স্টাফ রিপোর্টার :
কিশোরগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা ২০২০ ঘোষণা করা হয়েছে। ৬ষ্ঠ মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা ২০২০ দেওয়া হবে নাসিরউদ্দিন ফারুকী, ভূপেন্দ্র ভৌমিক দোলন ও শাহ আজিজুল হককে। এ উপলক্ষ্যে ‘কিশোরগঞ্জে আইন পেশার নান্দনিক বিন্যাস’ শীষক সম্মাননা বক্তৃতা প্রদান করবেন ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র প্রফেসর ড. মাহফুজ পারভেজ।
২০১৫ সালে কিশোরগঞ্জের সমাজ-সংস্কৃতি-সাহিত্য বিষয়ক সমীক্ষাধর্মী মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা ও বক্তৃতা প্রবর্তিত হয় ব্রিটিশ বিরোধী সংগ্রামী, ভাষাসৈনিক, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, কিশোরগঞ্জের বরিষ্ঠ চিকিৎসক ডা. এ. এ. মাজহারুল হক এবং সমাজসেবী নূরজাহান বেগমের উদ্যোগে।
গতানুগতিক আনুষ্ঠানিকতার বদলে কর্ম, কীর্তি ও ইতিহাসের আলোকে বিশ্লেষণ-মূল্যায়নভিত্তিক বক্তৃতার মাধ্যমে জ্ঞাপন করা হয় যথাযথ সম্মান এবং সম্মাননা স্মারকের পাশাপাশি মুদ্রিত আকারে বক্তৃতা-পুস্তিকায় চিত্রিত হয় সম্মাননার পটভূমি ও প্রাসঙ্গিক যৌক্তিকতা। প্রথাগত আনুষ্ঠানিকতার বাইরে ব্যতিক্রমী আয়োজনের মাধ্যমে ‘সম্মাননা বক্তৃতা’ মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন-এর বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ দিক। কিশোরগঞ্জে ‘সম্মাননা বক্তৃতা’র প্রবর্তক মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক প্রফেসর ড. মাহফুজ পারভেজ ইতিপূর্বে আরো পাঁচটি সম্মাননা বক্তৃতা প্রদান করেন। সেগুলো হলো, ‘আলোর পথের যাত্রী: শিক্ষাবিদ-সাহিত্যিক প্রাণেশকুমার চৌধুরী’ শীর্ষক ১ম মাজহারুন-নূর সম্মাননা বক্তৃতা ২০১৫, ‘দীপ্তিমান শিক্ষক-দম্পতি: অধ্যক্ষ মুহ. নূরুল ইসলাম ও খালেদা ইসলাম’ শীষর্ক ২য় মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা বক্তৃতা ২০১৬, ‘প্রজ্ঞার দ্যুতি ও আভিজাত্যের প্রতীক: প্রফেসর রফিকুর রহমান চৌধুরী’ শীর্ষক ৩য় মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা বক্তৃতা ২০১৭, ‘ঋদ্ধ মননের প্রাগ্রসর ভূমিপুত্র: শাহ মাহতাব আলী’ শীর্ষক ৪র্থ মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা বক্তৃতা ২০১৮ এবং ‘স্বাস্থসেবা-শিক্ষায় পথিকৃৎ চিকিৎসক-দম্পতি: প্রফেসর ডা. আনম নৌশাদ খান ও প্রফেসর ডা. সুফিয়া খাতুন’ শীর্ষক ৫ম মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা বক্তৃতা ২০১৯। ৬ষ্ঠ মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা ২০২০ উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠিতব্য ‘কিশোরগঞ্জে আইন পেশার নান্দনিক বিন্যাস’ শীষক সম্মাননা বক্তৃতা প্রসঙ্গে ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ও সম্মাননা বক্তা রাষ্ট্রবিজ্ঞানী প্রফেসর ড. মাহফুজ পারভেজ বলেন, কিশোরগঞ্জের আইন পেশার ঐতিহ্য শতাধিক বছরের প্রাচীন এবং ঐতিহাসিক গৌরবে ভূষিত। উপমহাদেশের আইন পেশায় এ. কে. ব্রোহী, রামজেট মালানি, পালকীওয়ালা, স্নেহাংশুকান্ত আচার্য, ইশতিয়াক আহমেদ এবং সদ্য-প্রয়াত রফিক-উল হকের মতো কীর্তিমানদের দেখা পাওয়া গেছে।
কিশোরগঞ্জের আইন পেশাতেও অনেকেই ছিলেন বা আছেন, মফস্বলে অবস্থানের কারণে যাদের মেধা ও মননের উপযুক্ত মূল্যায়ন হয় নি। অথচ তারা পেশার বাইরে শিক্ষা, সংস্কৃতি, শিল্প, সাহিত্য, রাজনীতিসহ বহুমাত্রিক ক্ষেত্রে মূল্যবান অবদান রেখে সমাজ প্রগতিকে বেগবান করেছেন। বক্তৃতায় সেই অর্জনের ইতিহাসকে তুলে আনার চেষ্টা করা হবে। বীক্ষণ করা হবে পেশার পাশাপাশি তাদের সামাজিক, সাংস্কৃতিক কাজের নান্দনিকতাও।
ড. মাহফুজ পারভেজ জানান, অতীতে প্রতি বছরই মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা ও বক্তৃতা অনুষ্ঠিত হলেও চলমান বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের ব্যাপকতার কারণে ৬ষ্ঠ মাজহারুন-নূর ফাউন্ডেশন সম্মাননা ও বক্তৃতা ২০২০ অনুষ্ঠান ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে বা পরবর্তীতে অনুকূল পরিস্থিতিতে আয়োজন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category