আজ ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বাবার টিপসহি নিয়ে মা-বাবাকে পিটিয়ে এলাকাছাড়া করল সন্তানরা

বিশেষ প্রতিনিধি.
বৃদ্ধ বাবাকে ঘুম পাড়িয়ে মধ্যরাতে বাড়ির জমি অবৈধভাবে টিপসহি নিয়ে সকালে মা-বাবাকে মারপিট করে এলাকা থেকে বের করে দিয়েছে সন্তানেরা। আশ্রয়হীন হয়ে ও না খেয়ে রাস্তায় রাস্তায় রাতদিন কাটাচ্ছে শহীদ মিয়া (৯৩)ও পরিবার। এমন মর্মমান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদির উত্তর গিলাকান্দি গ্রামে। শহীদ মিয়া ওই গ্রামের মৃত কেরামত আলীর ছেলে। সে এ ব্যাপারে কটিয়াদি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবার গত ১২ অক্টোবর একটি অভিযোগ করেছেন।
লিখিত অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জেলার কটিয়াদি উপজেলার উত্তর গিলাকান্দি গ্রামে শহীদ মিয়া তার তিন ছেলে রুস্তম মিয়া, পাশু মিয়া ও শাহাবুদ্দিন মিয়াকে নিয়ে বসবাস করে আসছেন। ছেলেদেরকে বিয়ে করানোর পর থেকে মা-বাবার কপালে নেমে আসে নির্যাতন আর দুঃখ-যন্ত্রণা। তা সইতে না পেরে শহীদ মিয়া তার স্ত্রী রৌশনারাকে নিয়ে ২০ বছর পূর্বে নিজের বাড়ি ছেড়ে একই গ্রামে তার নাতি সুমন মিয়া আশ্রয়ে জীবন-যাপন করে আসছেন। গত ১১ অক্টোবর সন্ধ্যায় শহীদ মিয়ার বড় ছেলে রোস্তম তার মা-বাবাকে তার ঘরে বরণপোষণ করাবে বলে ফুসলিয়ে বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে মা-বাবাকে ঘুম পাড়িয়ে মধ্যরাতে বাড়ির জমি তিন ভাইয়ের নামে অবৈধভাবে টিপসহি নিয়ে যায়। পরের দিন ১২ অক্টোবর সকালে তারা মা-বাবাকে পিটিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এসময় নাতি সুমনের মামা মেনু মিয়া তাতে বাঁধা দিতে গেলে তাকেও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। মেনু মিয়া এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছে।
শহীদ মিয়ার বড় ছেলে রুস্তম মিয়া তার বাবাকে মারপিটের কথা অস্বীকার কওে বলেন, আমার বাবা আজ থেকে ২০ বছর ধওে আমাদেও কোন খোঁজখবর না নিয়ে তার নাতিকে ও তাদের বাড়ি দেখাশোনা করে আসছে। তা নিয়ে আমাদেও কিছুটা ক্ষোভ থাকলেও জায়গা জমি লেখে নেয়ার কথাটা মিথ্যা বলেছেন তিনি।
এ ব্যাপারে শহীদ মিয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাকে ঘুমে রেখে আমার ছেলেরা বাড়িসহ জমি অবৈধভাবে টিপসহি নিয়ে লিখে নেয়। পরে আমাকে ও আমার স্ত্রীকে মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এ ব্যাপাওে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট একটি অভিযোগ দিয়েছি।
কটিয়াদি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা ঃ আক্তারুনেছা বলেন, আমি লিখিত অভিযোগ পেয়ে বিষয়টি অবগত হই। তদন্ত নিয়ে দেখে এ ব্যাপারে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     সম্প্রতি প্রকাশিত আরো সংবাদ