আজ ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

মাহমুদউল্লাহ’র কাছে তামিমের অসহায় আত্মসমর্পণ

ক্রীড়া ডেস্ক : বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের দ্বিতীয় ম্যাচে মঙ্গলবার তামিম একাদশকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। দুই ম্যাচ খেলা রিয়াদদের এটি প্রথম জয়। অন্যদিকে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই হারের স্বাদ পেল তামিমের দল।

এর আগের ম্যাচে নাজমুল একাদশের বিপক্ষে তারা ৪ উইকেটে হেরেছিল। প্রথম জয়ের লক্ষ্যে তামিম একাদশের বিপক্ষে টস জিতে ফিল্ডিংইয়ের সিদ্ধান্ত নেন মাহমুদউল্লাহ। মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এদিন আগে ব্যাট করতে নেমে তামিম একাদশ ১০৩ রানেই গুঁটিয়ে যায়। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২৭ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় মাহমুদউল্লাহ একাদশ।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪১ রান করে অপরাজিত থাকেন নুরুল হাসান সোহান। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৯ রান করেন মুমিনুল হক। তামিম একাদশের পক্ষে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ১টি, তাইজুল ইসলাম ২টি ও মোস্তাফিজুর রহমান ১টি করে উইকেট নেন।

মাহমুদউল্লাহ একাদশ ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় শূন্য রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে। তবে জয়ে ক্ষেত্রে এ বিপর্যয় বাদা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি। এরপর ৩৯ রানের জুটি গড়েন মাহমুদউল্লাহ ও মুমিনুল হক। ১৫তম ওভারে রিয়াদ ফিরে গেলে মুমিনুল ও সোহান জুটি বাঁধেন। তারা ৩৮ রানের পার্টনারশিপ করেন। দলীয় ৭৭ রানে মুমিনুল ফিরে গেলে সোহান ও সাব্বির রহমান দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে রুবেল-সুমনদের বোলিং তোপে মাত্র ১০৩ রানে অলআউট হয়ে যায় তামিম একাদশ। তারা ব্যাট করতে পারে পেরেছে ২৩.১ ওভার। বৃষ্টির কারণে ম্যাচটি ৪৭ ওভারে কমিয়ে আনা হয়।

এদিন শুরুতেই ব্যক্তিগত ২ রানে ফিরে যান অধিনায়ক তামিম ইকবাল। অপর ওপেনার তানজিদ হাসান ১৮ বলে ২৭ রান করে বিদায় নেন। ওয়ানডাউনে নেমে ২৫ রান করেন এনামুল হক বিজয়। পরের ব্যাটসম্যানরা শুধু আসা যাওয়ার মধ্যে থাকেন। সবমিলিয়ে ১০৩ রানে গুটিয়ে যায় তারা।

মাহমুদউল্লাহ একাদশের পেসার রুবেল হোসেন ৫ ওভারে ১৬ রান দিয়ে ৩ উইকেট শিকার করেছেন। ৫ ওভারে ৩১ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন আরেক পেসার সুমন খান। স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ ৪.১ ওভারে ২ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন। ৩ ওভারে ১৭ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন আমিনুল ইসলাম। ম্যাচ সেরা হন রুবেল হোসেন।

টুর্নামেন্টে একটি দল আরেকটি দলের বিপক্ষে ২ বার করে মুখোমুখি হবে। পয়েন্ট টেবিলের সেরা দুইটি দল ২৩ অক্টোবর ফাইনাল ম্যাচে মুখোমুখি হবে। আগামী ১৫ অক্টোবর নাজমুল একাদশের মুখোমুখি হবে তামিম একাদশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category