রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০, ১১:৪৬ অপরাহ্ন

চমকে দিলেন চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক!

বিনোদন প্রতিনিধি :
ফেসবুকে স্ত্রী ও সন্তানের ছবি পোস্ট করে সবাইকে চমকে দিয়ে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক। চার বছর চার মাস বয়সী বড় ছেলে সাদিক মো: সাইয়্যান এর বিদ্যালয় জীবনের প্রথম পরীক্ষায় প্রথম হওয়াকে উপলক্ষ করে স্ত্রী ও সন্তানের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেছেন।

স্ত্রী ও সন্তানের ছবি ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক বলেছেন, ‘একজন বাবা হিসেবে এটাই আমার সেরা মুহুর্ত।’

পোস্টটিতে তিনি লিখেছেন, “বাবা-মা। পৃথিবীর সবচেয়ে অমুল্য রতন। যা কিনা অনেকের মতো আমিও ভাষায় প্রকাশ করতে পারি না! আমার আব্বুকে কখনো বলিনি, তুমি আমাদের কতো বড় শক্তি, ছায়া, ভালোবাসা, আরো কতো কি যে আমরা উপলব্ধি করি, তুমি আছো বলে।

কোনোদিন আপনাদেরও বলিনি আমিও বাবা হয়েছি। আমার বড় ধন, আমার জীবন, আমার সন্তান, সাদিক মো: সাইয়্যান (৪ বছর ৪ মাস) আমার বড় ছেলে। ও তার বিদ্যালয় জীবনের প্রথম পরীক্ষায়, প্রথম হয়েছে। একজন বাবা হিসেবে এটাই আমার সেরা মুহুর্ত।

আমার টুকটুকের জন্য দোয়া করবেন, যেনো মানুষের মতো মানুষ হয়। বাংলাদেশকে যেনো অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যায়।

বি:দ্র: আমাকে ক্ষমা করবেন,ওকে এতো দিন পর আপনাদের সামনে আনার জন্য। বাবা তোমারই মতো আমিও বাবা হয়েছি… এখন বুঝি বাবা কতো কষ্ট তোমায় দিয়েছি……..।”

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকালে ফেসবুকে এ পোস্টটির পরই মূলত মানুষ জানতে পারে, চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক এর বিবাহ এবং সন্তানের কথা। এতদিন আড়ালে থাকা বিষয়টি জানতে পেরে অভিনন্দন আর শুভেচ্ছা বার্তায় সিক্ত হচ্ছেন চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক।

চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক এর স্ত্রীর নাম দীপা সাদিক। তাদের দুই ছেলে সন্তান রয়েছে। বড় ছেলের নাম সাদিক মো: সাইয়্যান। তার বয়স চার বছর চার মাস। সে এখন প্রথম শ্রেণিতে পড়াশোনা করেছে। আর ছোট ছেলের নাম সাদিক মো: সাইয়্যার। তার বয়স পাঁচ মাস।

একটি গণমাধ্যমকে দেয়া বক্তব্যে চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক জানিয়েছেন, নয় বছরের প্রেম শেষে তারা ছয় বছর আগে বিয়ের পিঁড়িতে করেছেন।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক ১৯৮৬ সালের ৩০ আগস্ট কিশোরগঞ্জ সদরের মহিনন্দ ইউনিয়নের কলাপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. সাদেকুর রহমান। মা উম্মে কুলসুম গৃহিনী। তিন বোন ও দুই ভাইয়ের মধ্যে সাইমন চতুর্থ। স্কুল জীবনে পড়াশোনা করেছেন কিশোরগঞ্জ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে। পরে ঢাকায়।

পরিচালক জাকির হোসেন রাজুর হাত ধরে চলচ্চিত্রে আগমন ঘটে এই সুদর্শন নায়কের। ‘সাগর শিকদার’ নামে চলচ্চিত্রের এক জুনিয়র শিল্পীর মাধ্যমে জাকির হোসেন রাজুর সাথে সাইমনের পরিচয় ঘটে। রাজু তাকে নায়ক বানানোর স্বপ্ন দেখান, সেই স্বপ্নে বিভোর হয়ে বারিধারায় একটি প্রতিষ্ঠানের চাকরি ছেড়ে অভিনয়ের প্রতি মনোযোগী হন সাইমন।

কিন্তু নায়ক হওয়া হচ্ছিল না। প্রায় দু্ই বছর পর আনন্দমেলা চলচ্চিত্রের প্রযোজনায় জ্বী হুজুর চলচ্চিত্রের নায়ক হিসেবে সাইমন কাজ শুরু করেন। ২০১২ সালের দিকে আনন্দমেলা চলচ্চিত্রের প্রযোজনা ও জাকির হোসেন রাজুর পরিচালনায় ‘জ্বী হুজুর’ চলচ্চিত্রের নায়ক হিসেবে সাইমনের অভিষেক।

ওই সময়ের দুঃসহ স্মৃতির বিষয়টি একটি দৈনিকে দেয়া সাইমন সাদিকের সাক্ষাৎকারে ওঠে আসে। ওই সাক্ষাতকারে সাইমন সাদিক বলেছিলেন, ‘জাকির হোসেন রাজু স্যারের সঙ্গে আমি প্রায় ৪ বছর। এই ৪ বছর অনেক জায়গায় তার সঙ্গে ঘুরেছি।

যেখানেই গেছি সেখানেই নেতিবাচক কথা শুনতে হয়েছে। তাদের কারো কারো কথায় অন্তরটা বিষিয়ে উঠেছে। কান্না পেয়েছে। ওয়াশরুমে গিয়ে কেঁদেছিও কখনো কখনো।

কেউ কেউ বলেছেন, রাজু ভাই এটাকে কোথা থেকে ধরে এনেছে? এটা কোনো নায়ক হল? মানুষ মানুষকে এভাবে কষ্ট দিতে পারে তা বিশ্বাস করতে কষ্ট হয়। সবকিছু ছেড়ে দিয়ে গ্রামে চলে যেতে চাই।

কিন্তু পরিচালক আমাকে যেতে দেন না। তিনি বলেন, এসব কষ্ট মেনে নিয়েই সামনে এগিয়ে যেতে হবে। কষ্টকে শক্তিতে পরিণত করতে হবে। যারা এসব বাজে কথা বলছেন তারা তো তোমাকে নায়ক বানাবেন না, তোমাকে নায়ক বানাব আমি। তার উৎসাহে আবার চাঙ্গা হয়েছি।’ জ্বী-হুজুরের মুক্তি উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কেঁদেছিলেন সাইমন।

তারপর থেকে বাজিমাত করেই চলেছেন তিনি। বিশেষ করে জাকির হোসেন রাজুর ‘পোড়ামন’ ছবি দিয়ে তিনি আলোচনায় আসেন। পোড়ামন আকাশচুম্বী সাফল্য পায়। এর মাধ্যমে চলচ্চিত্রে তিনি একটি শক্তিশালী অবস্থান তৈরি করে নিতে সক্ষম হন।

পাশাপাশি কেয়া ও মৌসুমি হামিদের বিপরীতে ‘ব্ল্যাকমানি’ ছবিতেও অভিনয় করে প্রশংসিত হন তিনি। তার মুক্তিপ্রাপ্ত অন্যান্য ছবির মধ্যে রয়েছে ‘তোমার কাছে ঋণী’, ‘তুই শুধু আমার’, ‘স্বপ্ন ছোঁয়া’, ‘পুড়ে যায় মন’,‘মায়াবিনী’, ‘জান্নাত’ ইত্যাদি।

এর মধ্যে সাইমন সাদিক অভিনীত ‘জান্নাত’ সিনেমাটি ২০১৮ সালে ঈদুল আযহায় মুক্তি পেয়েছিলো। এই ছবিতে সাইমনের বিপরীতে অভিনয় করেছেন মাহিয়া মাহি। বাংলাদেশের দর্শকের প্রশংসা কুড়িয়ে সিনেমাটি বেশ কিছু দেশের চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয়।

‘জান্নাত’ ছবিতে দুর্দান্ত অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক। শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্তি চিত্রনায়ক সাইমন সাদিকের সাফল্যের পালকে এক গৌরবোজ্জ্বল অর্জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
themesbatulpar4545
%d bloggers like this: