শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৯:৫০ অপরাহ্ন

করোনা নিয়ে ট্রাম্পের সুরে কথা বললেন প্রতিমন্ত্রী

তোলপাড় ডেস্ক :
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হোয়াইট হাউজে দুদিন আগে বলেছিলেন, আগামী এপ্রিলে গরম শুরু হলেই করোনা ভাইরাস দূর হয়ে যাবে। এবার বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী সেই সুরেই কথা বললেন।

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে চীনে যাত্রী আসা-যাওয়া কমে গেছে। এ নিয়ে আতঙ্কের কোনো কারণ নেই। করোনা ভাইরাস ৩২ থেকে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় বিনষ্ট হয়। বাংলাদেশের তাপমাত্রা দু-এক দিনের মধ্যে ৩২ এ উঠবে। তাই করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কের কারণ নেই।

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রণালয়ে পর্যটনের প্রসারে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় প্রকাশিত ট্রাভেল ম্যাগাজিন ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ এর মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান ও পর্যটনের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

মাহবুব আলী বলেন, বাংলাদেশ বিমান সরাসরি চীনে কোনো ফ্লাইট পরিচালনা করে না। ইউএস-বাংলা প্রাইভেট এয়ারলাইন্স, তাদের একটি ফ্লাইট রয়েছে তাও গুয়াংজু। গুয়াংজুতে করোনা ভাইরাস নেই। এরপর প্রতিনিয়ত মানুষের আসা-যাওয়া রয়েছে; প্রকৃতপক্ষে কোনো কিছুই থেমে নেই।

পর্যটন প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের যে নাগরিকরা চীনে আতঙ্কে ছিল, তাদের দেশে ফেরানো হয়েছে। তারা কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। তারা সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন। তারা করোনা ভাইরাস আক্রান্ত নন। আমাদের যে প্লেনটি চীনে গিয়েছিল সেই প্লেনটি জার্মফ্রি হয়েছে। একটি প্লেনকে জার্মফ্রি করার জন্য ৬ ঘণ্টা যথেষ্ট। কিন্তু আমরা ওই প্লেনটিকে ১৫ ঘণ্টা পর্যন্ত জার্মফ্রি করেছি। সেই প্লেনের ক্রু যারা ছিলেন, তারা ১৪ দিন পর্যন্ত বিশ্বের অন্য কোনো দেশে যাচ্ছে না। সুতরাং, যারা বিদেশে রয়েছে তারা নিরাপদ, আমাদের দেশেও এ ধরনের কোনো ভাইরাস প্রবেশ করেনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, এরপরেও মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সিভিল এভিয়েশনের পক্ষ থেকে করোনা ঠেকাতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। হ্যান্ডওয়াশ, ২৪ ঘণ্টা চারজন ডাক্তার, দুজন নার্স, চারজন ইন্সপেক্টর, ১০ জন করে বাইরোটেশন ৩০ জন ডিউটি দিচ্ছে। প্রয়োজনীয় ডাক্তার ও নার্স নিয়োগ করা হয়েছে। প্লেনের যাত্রীরা থার্মাল আইসোলেশনের ভেতর দিয়ে প্রবেশ করছে।

তিনি বলেন, একটি বিশেষ ডিটেকটিভ মেশিন বাংলাদেশে আনা হয়েছে, যা একজন যাত্রীর কপালে ধরলেই তার শরীরের তাপমাত্রা বলে দিচ্ছে। তারপরেও যাত্রীরা প্রতিদিন আসা-যাওয়া করছে এটা নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। করোনা ঠেকাতে সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মহিবুল হক এবং সংশ্লিষ্ট কয়েকজন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
themesbatulpar4545
%d bloggers like this: