শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৮:২৬ অপরাহ্ন

আইন দিয়ে সাংবাদিকতা নিয়ন্ত্রণ করা যায় না..কিশোরগঞ্জে বিচারপতি

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি :
বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, সাংবাদিকদের বলা হয় রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ। রাষ্ট্র থাকবে যতদিন, রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ হিসেবে সাংবাদিকতাও ততদিন থাকবে। কোনো আইন দিয়ে সাংবাদিকতা নিয়ন্ত্রণ করা যায় না। আর নিয়ন্ত্রণ করা উচিতও নয়।

বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) কিশোরগঞ্জে সাংবাদিকতার নীতিমালা, অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় লক্ষণীয় বিষয়সমূহ ও তথ্য অধিকার আইন অবহিতকরণ’ শীর্ষক জেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের অংশগ্রহণে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ এসব কথা বলেন। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এই কর্মশালার উদ্বোধক ছিলেন তিনি।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেন, অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার মাধ্যমে সমাজের দুর্নীতির চিত্র তুলে ধরতে হবে। এতে রাষ্ট্র থেকে দুর্নীতি কমে যাবে, স্বচ্ছতা বেড়ে যাবে। অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা রাষ্ট্রের কল্যাণ বয়ে আনে। এ জন্য সরকার তথ্য অধিকার আইন বাস্তবায়নে কাজ করছে। কারণ, রাষ্ট্রের মালিক জনগণ। জনগণের অধিকার আছে তথ্য জানার। তবে জনগণকে সঠিক তথ্য জানাতে সাংবাদিকদের দায়িত্ববোধ থেকে, বিবকে থেকে কাজ করতে হবে।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক। এতে তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ ও সাংবাদিকতার নীতিমালা বিষয়ে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের সচিব মো. শাহ আলম। জেলা প্রশাসক মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার)। কর্মশালা সঞ্চালনায় ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ। বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ তাঁর বক্তৃতায় সাংবাদিকদের যোগ্যতা-পরিচয় ও কল্যাণ প্রসঙ্গে বলেন, সাংবাদিকদের আইনী সুরক্ষার জন্য নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণে সরকার উদ্যোগী হলেও অনেক ক্ষেত্রে সাংবাদিকরাই এর বিরোধীতা করেন। তিনি ২০৩০ সালের মধ্যে কোনো সাংবাদিক প্রশিক্ষণের বাইরে থাকবে না উল্লেখ করে আগামী ছয় মাসের মধ্যে সাংবাদিকদের তালিকা বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে প্রকাশের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এমপি বলেন, ডিজিটাল উন্নতির ফলে কোনো তথ্য গোপন করা কঠিন। এ সময় তিনি ফেসবুকে অপপ্রচার রোধে প্রেস কাউন্সিলের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের ওপর জোর দেন। কর্মশালায় জেলায় কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার প্রায় ৫০ জন সাংবাদিক অংশ নেন। কর্মশালা শেষে তাদের মধ্যে সনদপত্র বিতরণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
themesbatulpar4545
%d bloggers like this: