সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:১৬ পূর্বাহ্ন

এলডিপি নামে অন্য কারও দল করার অধিকার নেই : অলি

রাজনীতি ডেস্ক:
এলডিপির নামে অন্য কারও রাজনীতি করার অধিকার নেই বলে জানিয়েছেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) সভাপতি ও জাতীয় মুক্তিমঞ্চের আহ্বায়ক ড. কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীর বিক্রম। তিনি বলেন, আমিই এলডিপি, বাকিরা সব ভুয়া। এলডিপি আমার নামে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল। যার নিবন্ধন নম্বর ০১।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এলডিপি প্রেসিডেন্ট এসব কথা বলেন।

অলি আহমদ বলেন, দলের কোনো ত্যাগী নেতাদের অবমূল্যায়ন করা হয়নি।

এলডিপি সভাপতি বলেন, যদি কেউ তার নিজের বাবার নাম বাদ দিয়ে আমার নামে পরিচিত হতে চায়, তাহলে আমার কোনো আপত্তি নেই। যারা নতুন কমিটি গঠন করেছে, তারা এমন কোনো গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি নয় যে, তাদের নিয়ে আলোচনা করতে হবে।

তিনি বলেন, আমি লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি প্রতিষ্ঠা করেছি। দীর্ঘ ১২ বছর যাবত এলডিপি সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছি। সম্প্রতি এলডিপি থেকে যারা বাদ পড়েছেন তারা আজ নতুন কমিটি করেছে, অবশ্য ওরা আমার ভাইয়ের মতো ও সন্তান সমতুল্য। তবে সেই ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কথা বলার শিক্ষা আমার বাবা-মা দেননি। বাংলাদেশে অনেক রাজনৈতিক দল আছে। এলডিপি থেকে বাদ পড়া ব্যক্তিরা না হয় আরও একটা নতুন দল করল। এতে ক্ষতির কী আছে? বলে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন অলি আহমদ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন—বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, জাতীয় দলের চেয়ারম্যান এহসান হুদা, জাগপার সহ-সভাপতি রাশেদ প্রধান, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না ও এলডিপির মহাসচিব রেদোয়ান আহমেদ প্রমুখ।

এর আগে, সোমবার সকালে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) নতুন অংশের কমিটি ঘোষণা করা হয়। রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের মওলানা আকরম খাঁ হলে এ কমিটি ঘোষণা করা হয়। এতে আবদুল করিম আব্বাসীকে সভাপতি এবং শাহাদাত হোসেন সেলিমকে মহাসচিব করা হয়েছে।

চলতি মাসের গত ৯ নভেম্বর রাতে এলডিপি নতুন কমিটি গঠন করা হয়। নতুন কমিটিতে অলি আহমদ সভাপতি ও রেদোয়ান আহমেদ মহাসচিব হিসেবে পুনর্নির্বাচিত হন।

ওই কমিটিতে সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিমকে বাদ দেওয়া হয়। গত ৭ মাস ধরে দলের কোনো কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত না থাকার অভিযোগে দলটির ঘোষিত এই কমিটিতে তাকে রাখা হয়নি।

এলডিপির নতুন কমিটি থেকে যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিমকে বাদ দেওয়ার পর দলের ভেতর চরম সংকট দেখা দেয়। এছাড়া গত ২৬ জুন দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন আবদুল করিম আব্বাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
themesbatulpar4545
%d bloggers like this: