সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন

প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া বিএনপির চিঠি প্রসঙ্গে যা বললেন কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক :
ভারতসহ অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের চুক্তির বিষয় জনসমক্ষে প্রকাশ করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে দেওয়া বিএনপির চিঠির বিষয়ে কথা বলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রবিবার (১৭ নভেম্বর) রাজধানীর আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে সড়ক নিরাপত্তা এবং সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ শীর্ষক সেমিনার শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে এ বিষয়ে কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির আমলে অনেক চুক্তি হয়েছে। তারা কোন চুক্তি সংসদে উত্থাপন করেছে। আমি জোর গলায় বলতে পারি, স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে কোনো চুক্তি করেন না প্রধানমন্ত্রী। ভারতের সঙ্গে যা চুক্তি হয়েছে, তা দিবালোকের মতো পরিষ্কার। চুক্তি কখনো গোপন রাখা যায় না।

‘আওয়ামী লীগ মানে দেশ বিক্রি করা’ বিএনপির এমন অভিযোগের বিষয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এগুলো পলিটিক্যাল স্ট্যান্ডবাজি ছাড়া আর কিছুই নয়।

সম্প্রতি ইসলামি ছাত্রশিবিরের নেতারা বিএনপি মহাসচিবের সঙ্গে দেখা করেছেন- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে কাদের বলেন, বিএনপি জামায়াতের মধ্যে ভেতরে ভেতরে সম্পর্ক আগের মতোই রয়ে গেছে।

রবিবার (১৭ নভেম্বর) বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে বিএনপি মহাসচিব স্বাক্ষরিত চিঠি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে গিয়ে জমা দেন দলের যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল ও খায়রুল কবির খোকন। চিঠিতে তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরসহ অন্যান্য দেশ সফরে বাংলাদেশের সঙ্গে কী কী চুক্তি হয়েছে তা সংসদে উত্থাপন করে জনগণের কাছে প্রকাশ করার আহ্বান জানিয়েছেন। এসব চুক্তি সম্পর্কে জানার অধিকার সংবিধান অনুযায়ী জনগণের অধিকার আছে বলে দাবি জানিয়েছে বিএনপি।

চিঠি প্রদানের পর বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, চিঠিতে আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরসহ অন্যান্য দেশের সফরকালে বাংলাদেশের সঙ্গে কী কী চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে তা সংবিধান অনুযায়ী জনসমক্ষে প্রকাশ করার আহ্বান জানিয়েছি। তিনি জানান, চুক্তিগুলোতে দেশের স্বার্থে কোনো হানি হয়েছে কি না এই বিষয়েও জানতে চেয়েছে বিএনপি।

আলাল অভিযোগ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে চুক্তির বিষয়ে আলাপ করলেও জাতীয় সংসদে এ বিষয়ে কোনো কথা বলেননি। এছাড়া রাষ্ট্রপতির কাছেও এই চুক্তির ফাইল গিয়েছে কি না এই বিষয়ে সাধারণ জনগণ কিছুই জানে না। তাই সংবিধান অনুযায়ী জনগণের অধিকার রয়েছে চুক্তির বিষয়ে জানার। আর জনগণের সমর্থিত দল হিসেবে বিএনপি এই দায়িত্ব পালন করেছে।

সংসদে বিএনপির প্রতিনিধি থাকতেও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কেন এমন প্রশ্নের জবাবে আলাল বলেন, আমাদের প্রতিনিধিরা কয়েক দফা সংসদে চুক্তির বিষয় নিয়ে কথা বলার জন্য আবেদন জানিয়েছে। কিন্তু এই বিষয়ে তাদের কথা বলার অনুমতি দেওয়া হয়নি। এজন্য আমরা বাধ্য হয়েই প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে চিঠি নিয়ে এসেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
themesbatulpar4545
%d bloggers like this: