মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন

উত্তাল কাশ্মীরে এক দিনে নিহত ৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
কাশ্মীরে চলছে সেনা অভিযান। (ছবিসূত্র : এমএসএন)
ভারতীয় সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে ভূস্বর্গ খ্যাত জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করায় অঞ্চলটিতে ইতোমধ্যে এক থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। যা নিয়ে প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলোতে সৃষ্ট উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যে এবার উপত্যকাটির মুঠোফোন সংযোগ চালু হলেও সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোতে এখনো থামানো যাচ্ছে না রক্তক্ষয়ী সংঘাত।

গত বুধবার (১৬ অক্টোবর) এক দিনেই সেখানে প্রাণ ঝরেছে পাঁচজনের। যাদের মধ্যে এখন পর্যন্ত তিন বিচ্ছিন্নতাবাদীকে হত্যার কথা জানিয়েছে ভারতীয় নিরাপত্তারক্ষী বাহিনী। তাছাড়া সন্দেহভাজন জঙ্গিদের গুলিতে আর দুই বেসামরিক নিহতের খবরও পাওয়া গেছে।

সূত্রের বরাতে বার্তা সংস্থা ‘রয়টার্স’ জানায়, গত আগস্ট মাসে বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর অন্যতম একটি রক্তাক্ত দিনের সাক্ষী হলো ভূস্বর্গখ্যাত এই কাশ্মীর।

উপত্যকাটিতে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা ধীরে ধীরে প্রত্যাহার করতে শুরু করেছে প্রশাসন। যার অংশ হিসেবে টানা ৭২ দিন পর গত সোমবার (১৪ অক্টোবর) রাজ্যের বেশকিছু অংশের প্রি-পেইড মুঠোফোনের সংযোগ চালু করা হয়। তাছাড়া গত সপ্তাহের বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) কাশ্মীরে বেড়াতে যাওয়া পর্যটকদের ওপর থেকে সব ধরনের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছিল প্রশাসন। যদিও ইন্টারনেট সংযোগ এখন পর্যন্ত বন্ধ রয়েছে।

এ দিকে সেনা সূত্রের বরাতে গণমাধ্যম ‘সিএনএন নিউজ-১৮’ জানায়, বুধবার স্থানীয় সময় ভোর ৬টা থেকে সেনা-জঙ্গিদের মধ্যে গুলি বিনিময় শুরু হয়। এতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বাড়িটিতে থাকা ৩ সন্দেহভাজন ব্যক্তি ভারতীয় সেনা সদস্যদের গুলিতে নিহত হয়েছে।

অপর দিকে কাশ্মীর পুলিশ এক বিবৃতিতে জানায়, ‘এবারের সংঘর্ষে তিন জঙ্গি নিহত হয়েছে। এরই মধ্যে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তাছাড়া ঘটনাস্থল থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র, গোলাবারুদসহ নানা সামগ্রী উদ্ধার করা হয়।’

এর আগে গত ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছিল ক্ষমতাসীন মোদী সরকার। যার প্রেক্ষিতে পরবর্তীকালে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে বিতর্কিত লাদাখ ও জম্মু-কাশ্মীর সৃষ্টির প্রস্তাবেও সমর্থন জানানো হয়।

এসবের মধ্যেই চলমান কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারত মধ্যকার সম্পর্কে নতুন করে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। এরই মধ্যে একে একে ভারত সরকারের সঙ্গে বাণিজ্য, যোগাযোগসহ সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা দিয়েছে প্রতিবেশী পাকিস্তান। যদিও এমন সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে ভারত পাশে পেয়েছে রাশিয়াকে এবং পাক সরকারের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ দেশ ইরান ও এশিয়ার পরাশক্তি চীন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
themesbatulpar4545
%d bloggers like this: