রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯, ১২:৪৭ অপরাহ্ন

পাকুন্দিয়ায় ভাবীকে কুপিয়ে হত্যায় দেবরের ফাঁসি

আদালত প্রতিনিধি :
কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় পারিবারিক কলহের জের ধরে ভাবীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় দেবর আজহারুল ইসলাম মিলন (৩৪) কে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার (১০ জুন) কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক মো. আব্দুর রহিম এই মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত আজহারুল ইসলাম মিলন পাকুন্দিয়া মধ্যপাড়া মৌলভীপাড়ার মৃত সায়েম উদ্দিনের ছেলে।

মামমলা সূত্রে জানা যায়, পারিবারিক কলহের জের ধরে ২০১৫ সালের ১৫ জুন দুপুরে ভাবী তাছলিমা আক্তারকে উপর্যুপরি কুপিয়ে গুরুতর আহত করে দেবর আজহারুল ইসলাম মিলন। ভাবীকে কুপিয়ে আহত করার পর পরই রামদাসহ পাকুন্দিয়া থানায় আত্মসমর্পণ করে মিলন।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাছলিমাকে পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পর সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পথে দুপুর ২টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

পরে এ ঘটনায় নিহত তাসলিমার ভাই সাহাবুদ্দিন বাদী হয়ে একেই দিন আজহারুল ইসলামকে আসামী করে পাকুন্দিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
পুলিশ তদন্ত শেষে ২০১৬ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি আদালতে অভিযোপত্র দাখিল করে।

রাষ্ট্রপক্ষে এপিপি অ্যাডভোকেট সৈয়দ শাহজাহান ও আসামী পক্ষে অ্যাডভোকেট মো. জালাল উদ্দিন মামলা পরিচালনা করেন।

নিহত তাছলিমা আক্তার তিন সন্তানের জননী ছিলেন। তিনি পাকুন্দিয়া মধ্যপাড়া মৌলভীপাড়া গ্রামের বাবুল মিয়ার স্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
themesbatulpar4545
%d bloggers like this: