বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০১:২১ পূর্বাহ্ন

কটিয়াদীতে সত্যজিৎ রায়ের পৈত্রিক বাড়িতে বৈশাখী মেলা

কটিয়াদী প্রতিনিধি :
কটিয়াদী উপজেলার মসূয়া গ্রামে বুধবার (৮ মে) থেকে বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তী বিশ্ব নন্দিত চলচ্চিত্রকার সত্যজিৎ রায়ের পৈত্রিক বাড়িতে ৭ দিন ব্যাপী বৈশাখী মেলা শুরু হয়েছে। বাড়ির সামনের খোলা মাঠ, পুকুর ঘাট সংলগ্ন প্রায় সহস্র স্টলে মাটির পুতুল, হাড়ি-পাতিল, খেলনা, তৈজসপত্র, কসমেটিক, কাঠের জিনিস ইত্যাদি নানা রকম পণ্যসহ, মিষ্টি ও খাদ্যের পসরা সাজিয়ে বসেছেন দোকানিরা।

জানা যায়, সত্যজিৎ রায়ের পূর্ব পুরুষ জমিদার হরি কিশোর রায় চৌধুরী শ্রী শ্রী কাল ভৈরবী পূজা উপলক্ষে এ মেলার প্রচলন করেন। প্রতি বছর বৈশাখ মাসের শেষ বুধবার এ মেলা শুরু হয়। বাড়ির সামনের খোলা মাঠ, পুকুর ঘাট সংলগ্ন প্রায় সহস্র স্টলে মাটির পুতুল, হাড়ি-পাতিল, খেলনা, তৈজসপত্র, কসমেটিক, কাঠের জিনিস ইত্যাদি নানা রকম পন্যসহ, মিষ্টি ও খাদ্যের স্টল বসে। তাছাড়া শিশু কিশোরদের বিনোদনের জন্য থাকে নাগরদোলা ও চরকি। প্রতিদিনই দূরদূরান্ত থেকে হাজার হাজার মানুষ মেলা পরিদর্শন, কেনা কাটা ও বিনোদনের জন্য আসেন।

মসূয়া গ্রামের এই বাড়িতে ১৮৬০ সালে জন্ম গ্রহণ করেন সত্যজিৎ রায়ের পিতামহ প্রখ্যাত শিশু সাহিত্যিক উপেন্দ্র কিশোর রায় চৌধুরী। ১৮৮৭ সালে জন্ম গ্রহণ করেন সত্যজিৎ রায়ের পিতা ছড়াকার সুকুমার রায়। দেশ বিভাগের পূর্বে উপেন্দ্র কিশোর রায় চৌধুরী সপরিবারে কলকাতা চলে যান। বর্তমানে বাড়িটি সরকারের রাজস্ব বিভাগের তত্বাবধানে রয়েছে।

সম্প্রতি পর্যটন বিভাগের উদ্যোগে একটি বাংলো নির্মাণ, পুকুর ঘাট ও রাস্তা সংস্কার করা হয়েছে। মেলায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কবি সাহিত্যিকসহ দর্শনার্থীদের সমাগম ঘটে। কটিয়াদী সাহিত্য সংসদ ও সুকুমার রায় আবৃত্তি পরিষদ ও স্থানীয় বিভিন্ন সাহিত্য সংগঠন মেলায় কবিতা পাঠের আয়োজন করে।

মেলা কমিটির সভাপতি ইউএনও ইসরাত জাহান কেয়া জানান, মেলা সুষ্ঠু ভাবে উদযাপনের জন্য সকল প্রকার নিরাপত্তা মূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল ওয়াহাব আইন উদ্দিন বলেন, রায় বাড়িটি কটিয়াদীবাসীর গর্ব। পর্যটন মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে কিছু সংস্কার ও বাংলো নির্মাণ করা করা হয়েছে। তবে রক্ষণাবেক্ষণের অভাব রয়েছে। রায় বাড়িটি সংরক্ষণের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক ভবন, গ্রন্থাগার বা আরও অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রয়োজন। পর্যটন মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
themesbatulpar4545
%d bloggers like this: