বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০১:৩৯ পূর্বাহ্ন

নেত্রকোণায় আদিবাসীদের চেংগ্নী মেলার সমাপ্তি

নেত্রকোনা প্রতিনিধি:
সীমান্তবর্তী নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার গাড়ো পাহাড়ের পাদদেশে লেংগুরা ইউনিয়নের গোপাল বাড়ি এলাকায় শ্রী শ্রী গোপাল ঠাকুর মন্দিরে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল আদিবাসী হাজংদের ঐতিহ্যবাহী চেংগ্নী মেলা। গত বৃহস্পতিরাব থেকে শুরু হওয়া মেলা শেষ হয়েছে গতকাল সোমবার। মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মানু মজুমদার। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দোলপূজাকে কেন্দ্র করে লেংগুড়া ১শ ৭৪ তম এ মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দীঘদিনের পুরানো এই মেলা পরিণত হয়েছিল ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী আদিবাসীসহ সকল ধর্মের মানুষের মিলন মেলায়।
১৭৩ বছর ধরে চলে আসা সনাতন ধর্মাবলম্বী হাজং আদিবাসীদের অংশ গ্রহণে দোল উৎসব অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। এই দোলপূজাকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা আদিবাসীসহ সনাতন ধর্মবলম্বীরা আসেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য ঘেরা পাহাড় বেষ্টীত এই সীমান্ত এলাকায়। এখানে বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা কীর্ত্তনীয়া দল হরিনাম সংকীর্তন পরিবেশন করে। হাজং সম্প্রদায়ের বিপুল সংখ্যক ভক্ত, নারী-পুরুষ হরিনাম সংকীর্তন শুনেন।
মেলায় দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা দোকানীরা বিভিন্ন ধরনে মুখরুচক খাবার, মাটির তৈরী আসবাবপত্র, ছোটদের খেলনা সহ প্রয়োজনীয় নানা সামগ্রীর পরশা সাজিয়ে বসে দোকানীরা। দীর্ঘদিনের পুরনো মেলা দেখতে নেত্রকোনা সহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা নানা বয়সী হাজারো দর্শনার্থীর ঢল নেমেছিল এ মেলায়। পার্শ্ববর্তী ভারতীয় আদিবাসীরাও পরিবার পরিজন নিয়ে কেনাকাটা করতে আসেন এ মেলায়। সবমিলে ৫ দিনের এ মেলা পরিণত হয় সকল ধর্মের মানুষের মিলন মেলায়।
চেংগ্নী মেলা আয়োজক কমিটির সভাপতি সজল হাজং বলেন, মেলার পার্শ্ববর্তী পাহাড়ি পরিবেশ দেখে মুগ্ধ দর্শনার্থীরা। পাশাপাশি বেচাকেনা ভালো হওয়ায় খুশি ব্যাবসায়ীরাও। মেলার অয়োজনকে সফল করতে সার্বিক সহযোগিতা করেছেন স্থানীয় আদিবাসী সহ বাঙ্গালিরা। সামনের বছর এ মেলাটি আরো বড় আকারে আয়োজন করার ইচ্ছা ও আশা প্রকাশ করেছেন আয়োজক কমিটির তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
themesbatulpar4545
%d bloggers like this: