বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ১২:০০ পূর্বাহ্ন

তাঁরা ভোট দিতে পারবেন না!

প্রতিনিধি, মুম্বাই:
লোকসভা নির্বাচনের দামামা বেজেছে। রাজনৈতিক দলগুলোর প্রস্তুতি এখন তুঙ্গে। বিটাউনের অলিগলিতে নির্বাচনের হাওয়া বইছে। কোন বলিউড তারকা কোন দলের হয়ে নির্বাচনী প্রচার করবেন, তা ঘিরে চলছে জল্পনাকল্পনা। আমির খান ও সালমান খান ভারতীয় নাগরিকদের ভোট দেওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। এদিকে এই বিটাউনে কিছু তারকা আছেন, যাঁদের ভোটাধিকার নেই।

এবার লোকসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ১১ এপ্রিল থেকে ১৯ মে। ভারতের নাগরিকেরা সাত দফায় ভোট দেবেন। তবে ভোটারের তালিকায় একাধিক বলিউড তারকার নাম নেই। এই তালিকায় প্রথমেই উঠে আসে বিটাউনের ‘খিলাড়ি অভিনেতা’ অক্ষয় কুমারের নাম। তাঁর পাসপোর্ট আর নাগরিকত্ব কানাডার। তাঁকে সম্মানিত করার জন্য কানাডার নাগরিকত্ব দেওয়া হয়েছে। অক্ষয়কে কানাডার ইউনিভার্সিটি অব উইন্ডসর থেকে ‘অনারারি ডক্টরেট অব ল’ ডিগ্রি দিয়ে সম্মানিত করা হয়। এরপর তাঁকে কানাডার সম্মানীয় নাগরিকত্বের সম্মান দেওয়া হয়। তাই অক্ষয়ের ভারতীয় ভোটাধিকার নেই।

বলিউড সুন্দরী দীপিকা পাড়ুকোনের ভোট দেওয়ার অধিকার নেই। তাঁর জন্ম হয়েছিল ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে। জন্মের এক বছর পর দীপিকা ভারতে আসেন। কিন্তু তাঁর কাছে ডেনমার্কের নাগরিকত্ব ও পাসপোর্ট আছে। দীপিকার বলিউডে অভিষেক হয় শাহরুখ খানের ‘ওম শান্তি ওম’ ছবির মাধ্যমে। আরও একজন বলিউড সুন্দরী আছেন এই তালিকায়—ক্যাটরিনা কাইফ। তিনি ব্রিটিশ নাগরিক। তাই এ দেশে তাঁর ভোট দেওয়ার অধিকার নেই।

জ্যাকুলিন ফারনান্দেজের জন্ম বাহরাইনের রাজধানী মানামায়। কিন্তু তিনি বড় হয়েছেন শ্রীলঙ্কায়। জ্যাকুলিন শ্রীলঙ্কার নাগরিক। তাঁর বাবা এলরয় ফারনান্দেজ শ্রীলঙ্কার তামিল। আর মা কিম মালয়েশিয়ার মেয়ে।

‘রকস্টার’ ছবির মাধ্যমে জনপ্রিয়তা পান নারগিস ফখরি। ভারতে থাকা সত্ত্বেও এই বলিউড অভিনেত্রীর ভোট দেওয়ার অধিকার নেই। নারগিসের জন্ম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে। তাই তাঁর নাগরিকত্ব এবং পাসপোর্ট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। সানি লিওনির ভোটাধিকার নেই। কারণ তিনি ভারতের নাগরিক নন। সানির আসল নাম করনজিত কাউর। তাঁর জন্ম হয়েছিল কানাডার সর্নিয়ার এক শিখ পরিবারে। তবে এখানেই শেষ নয়। আরও অবাক হওয়ার পালা অপেক্ষা করছে। আলিয়া ভাটের নামও ভোটার তালিকায় নেই। এই বলিউড সুন্দরী নাকি ভারতের নাগরিক নন। আলিয়ার মা সোনি রাজদান বার্মিংহামের। তাই সোনির ব্রিটিশ নাগরিকত্ব। সেই সূত্রে আলিয়াও সেই দেশের নাগরিক।

বলিউডের এক ফ্লপ নায়কের নাম আছে এই তালিকায়। আমির খানের ভাগনে ইমরান খান। তাঁর জন্ম যুক্তরাষ্ট্রের উইস্কনসিনের মেডিসন শহরে। কিন্তু মা-বাবার মধ্যে ডিভোর্স হওয়ার পর তাঁকে ক্যালিফোর্নিয়া চলে যেতে হয়। সেখানেই তিনি পড়াশোনা করেন। তাই ইমরানের কাছে মার্কিন পাসপোর্ট আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
themesbatulpar4545
%d bloggers like this: