FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

২৮ আগস্ট, ২০১৭ - ১১:৪৯ অপরাহ্ণ

১৭৮২ কোটি টাকা ব্যয়ে বাস্তবায়িত হচ্ছে স্টেপ

Education_Ministry20170828201109

x

নিজস্ব প্রতিবেদক : ১ হাজার ৭৮২ কোটি ১৩ লাখ টাকা ব্যয়ে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের অধীনে স্কিল অ্যান্ড ট্রেনিং এনহান্সমেন্ট প্রজেক্ট ( স্টেপ) বাস্তবায়িত হচ্ছে। এ প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে ৯৬৫ কোটি ৬৫ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে।

এ খাতে এ বছরের এডিপিতে বরাদ্দ ২২৯ কোটি ১২ লাখ টাকা। এ প্রকল্পের আওতায় ১ লাখ ৪৪ হাজার শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেওয়া হয়েছে। ৩ হাজার ৭৬৮ জন শিক্ষককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। সিঙ্গাপুরে ৮২৯ জন এবং চীনে ৬৭ জন কারিগরি শিক্ষক প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। আরো প্রায় ১ হাজার ২৫০ জন শিক্ষক সিঙ্গাপুর ও চীনে প্রশিক্ষণ নেবেন।

সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) পর্যালোচনা সভা ঢাকায় পরিবহন পুল ভবনে বিভাগের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সভায় সভাপতিত্ব করেন।

সভায় জানানো হয়, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের অধীন চলমান ছয়টি কারিগরি প্রকল্পে এবারের এডিপিতে মোট ৭৮৫ কোটি ৪৩ লাখ টাকা বরাদ্দ রয়েছে।

দেশের ১০০টি উপজেলায় একটি করে টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ (টিএসসি) স্থাপন প্রকল্পের জন্য প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ২ হাজার ২৮১ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। এবারের এডিপিতে বরাদ্দ ৪৩২ কোটি ৫ লাখ টাকা। এর মধ্যে ১৯টি টিএসসি নির্মাণের কার্যাদেশ দেওয়া হয়েছে এবং ৫১টি টিএসসি স্থাপনের দরপত্র আহ্বান জানানো হয়েছে। এ ছাড়া নির্বাচিত বেসরকারি মাদরাসাসমূহের একাডেমিক ভবন নির্মাণ প্রকল্পটি প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। ইতোমধ্যে ১ হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯৬৫টির ভবন নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। এ প্রকল্পে মোট বরাদ্দ ছিল ৭৩৮ কোটি ২৪ লাখ টাকা।

বরিশাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। আগামী সেশনে ছাত্র ভর্তি করা সম্ভব হবে। ৯১ কোটি ৫৪ লাখ টাকা ব্যয়ে কলেজটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে এ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আগামী বছরের জুনের আগেই প্রকল্পগুলোর কাজ শেষ করতে হবে। যেসব প্রকল্পের কাজ শেষ পর্যায়ে আছে, সেগুলো দ্রুত শেষ করার তাগিদ দেন মন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কারিগরি শিক্ষার যে লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে, তা বাস্তবায়ন করতে হলে প্রকল্পগুলোর কাজ যথাসময়ে শেষ হওয়া জরুরি। এজন্য তিনি প্রকল্প পরিচালকদের আরো উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান।

সভায় কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, অতিরিক্ত সচিব এ এফ এম এনামুল হক ও এ কে এম জাকির হোসেন ভূঞা, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অশোক কুমার বিশ্বাস, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মো. মোস্তাফিজুর রহমান এবং সংশ্লিষ্ট প্রকল্প কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

print