রবিবার , ১৭ জুলাই ২০২২ | ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ ও দুর্নীতি
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আরও
  5. ইসলাম
  6. করোনাভাইরাস
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয়
  9. বানিজ্য
  10. বিনোদন
  11. রাজনীতি
  12. লাইফস্টাইল
  13. শিক্ষা
  14. সর্বশেষ
  15. সারাদেশ

সংসদে এমপি-চেয়ারম্যানের হাতাহাতি, কুমিল্লায় সংঘর্ষ

প্রতিবেদক
দৈনিক তোলপাড়
জুলাই ১৭, ২০২২ ৮:৫৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
২৬ বছর পর আগামী ২১ জুলাই দেবিদ্বার উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন হতে যাচ্ছে। এ সম্মেলনকে সামনে রেখে শনিবার (১৬ জুলাই) বিকালে জাতীয় সংসদ ভবনের দ্বিতীয় তলায় পার্লামেন্ট মেম্বারস ক্লাবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির বৈঠক বসে।

কুলাউড়ায় আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদকের ত্রাণ বিতরণ প্রস্তুতি কমিটির বৈঠকে ইউনিয়ন কমিটি ঘোষণা নিয়ে কুমিল্লা-৪ (দেবীদ্বার) আসনের এমপি রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ও দেবীদ্বার উপজেলা চেয়ারম্যান, আওয়ামী লীগ কুমিল্লা (উ.) জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে দুই গ্রুপের মধ্যে দেবীদ্বারে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে ও সংঘর্ষ বাধে।

ঘটনায় উপস্থিত আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, এমপি রাজী মোহাম্মদ ফখরুল ক্ষিপ্ত হয়ে আবুল কালাম আজাদকে মারধর শুরু করেন। পরে আজাদও পাল্টা জবাব দিলে হাতাহাতি শুরু হয়ে যায়।

কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ এ ঘটনার জন্য এমপিকে দায়ী করে বলেছেন, সিসি ক্যামেরার ভিডিও দেখলেই সব বোঝা যাবে।

অন্যদিকে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুল বলেছেন, এখন তিনি চিকিৎসাধীন। পরে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত বলবেন।

এদিকে উপজেলা চেয়ারম্যান আজাদকে ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করার খবর এলে শনিবার সন্ধ্যার আগে আগে দেবিদ্বারে দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হয়।

হাসপাতালে ভর্তি আবুল কালাম আজাদহাসপাতালে ভর্তি আবুল কালাম আজাদ চেয়ারম্যান সমর্থকরা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বাগুর বাস স্ট্যান্ড এলাকা অবরোধ করে এমপির বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল করেন। আধা ঘণ্টা ধরে তাদের এই বিক্ষোভে মহাসড়কে যানজট সৃষ্টি হয়।

রাত পৌনে ৮টার দিকে চেয়ারম্যান সমর্থকরা দেবিদ্বার সদরে মিছিল বের করলে এমপির সমর্থকদের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। সংঘর্ষের মধ্যে বেশ কয়েকটি হাতবোমা ফাটানো হয় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান। এ সময় দুই পক্ষের অন্তত ১৫ জন আহত হন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এ বিষয়ে দেবিদ্বার থানার ওসি কমল কৃষ্ণ ধর বলেন, এমপি আর চেয়ারম্যানের সমর্থকদের উত্তেজনার খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। দ্রুত সময়ের মধ্যে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়েছি। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ দায়িত্ব পালন করছে।

সর্বশেষ - সর্বশেষ