FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ - ৬:০৭ অপরাহ্ণ

রোহিঙ্গাদের ‘সন্ত্রাসী’ আখ্যা দিলেন সুচি

image-99015-1504686600

x

অনলাইন ডেস্ক:
শান্তিতে নোবেল বিজয়ী মিয়ানমার নেত্রী অং সান সুচি অব্যাহত আন্তর্জাতিক চাপের মধ্যে অবশেষে রোহিঙ্গা ইস্যুতে মুখ খুলেছেন। তবে রাখাইনের মানবিক সংকটের বিষয়ে তিনি কোনো কথা বলেননি। উল্টো রোহিঙ্গাদের ‘সন্ত্রাসী’ আখ্যা দিয়ে এক হাত নিয়েছেন।

চলমান সংকটে রোহিঙ্গাদের দোষারোপ করে সুচির দাবি, ‘বাঙালিরা (রোহিঙ্গা) অসংখ্য ভুল তথ্য ছড়াচ্ছে।

তবে সেনাবাহিনীর নির্যাতনের মুখে রাখাইন থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আসা ১ লাখ ২৫ হাজার রোহিঙ্গার বিষয়ে কিছুই বলেননি তিনি।

বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচির বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী সমালোচনার ঝড় বইছে। গত ১১ দিনে রাখাইন রাজ্যে চলা সহিংসতা নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছিলেন নোবেল শান্তি পুরস্কার বিজয়ী এই নেত্রী।

মঙ্গলবার জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্থনি গুতেরেসও সুচিকে সতর্ক করেন, মিয়ানমারে জাতিগত রোহিঙ্গা নিধনে আঞ্চলিক অস্থিতিশীলতা নেমে আসবে। মিয়ানমার কর্তৃপক্ষকে তিনি দ্রুত সংকট উত্তরণে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান।

মূলত গতকাল মঙ্গলবার সুচিকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে ফোন করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েফ এরদোগান।

সেখানে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি। আর এই বিষয়েই সুচি সরাসরি কিছু না বলে নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে একটি বিবিৃতি দিয়েছেন।

সেখানে বলা হয়, রাখাইন রাজ্যের সব মানুষকে রক্ষায় সর্বোচ্চ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।’রাখাইন সংকট নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘ভুল তথ্য’ সরবরাহ করা হচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘এর মাধ্যমে সন্ত্রাসীদের স্বার্থসুরক্ষা’ করা হচ্ছে।’

উল্লেখ্য, গত ২৪ আগস্ট মধ্যরাতের পর থেকে রাখাইন রাজ্যে সংঘাত শুরু হয়। এরপর দেশটির হিসাবে ৪ শতাধিক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছেন। আর বিগত ১২ দিনে বাংলাদেশে অন্তত ১ লাখ ২৫ হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন। সূত্র: রয়টার্স

print