FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ - ৩:৪৭ অপরাহ্ণ

ময়মনসিংহে দুই সন্তানকে হত্যা করল পাষণ্ড পিতা

x

newsময়মনসিংহ প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের সদর উপজেলার ঘাগড়া ইউনিয়নের উত্তর সুহিলা গ্রামে পারিবারিক কলহের জেরে নিজ ছেলে ও মেয়েকে পুকুরে ফেলে হত্যা করেছে পাষণ্ড পিতা ওয়ালিউল্লাহ। এ ঘটনায় ঘাতক পিতাকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত দুই শিশু হলো: রোমান (৫ মাস) ও ঐশী (৬)। সোমবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, সন্তানদের হত্যার কথা পিতা নিজেই স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, স্ত্রী ও মা’র সঙ্গে ক’দিন ধরে ওয়ালিউল্লাহর পারিবারিক কলহ চলে আসছিল। ক’দিন আগে তিনি নিজেই ফাঁসি নেবার চেষ্টা করেছিলেন। মূসা নামের এক লোক তাকে সেখান থেকে বাঁচায়। এরপরই ওয়ালিউল্লাহ সিদ্ধান্ত নেয় নিজেও মরবে বাচ্চাদেরও মেরে ফেলবে। পরে সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে মা’র পাশে ঘুমানো রোমানকে ও দাদীর পাশের ঘুমানো ঐশীকে নিয়ে বাড়ির পাশের পুকুরে ফেলে দেয়। মৃত্যু নিশ্চিত করে ঘরে ফিরে পিতা ওয়ালিউল্লাহ সন্তানদের খোঁজে চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এসে জড়ো হয়। পরে খোঁজাখুঁজি করে বাড়ির পাশে পুকুর থেকে রোমানের লাশ উদ্ধার করে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পুকুরে জাল ফেলে ঐশীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

কোতোয়ালী মডেল থানার সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আব্দুর রশিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘাতক পিতাকে আটক করেছে পুলিশ। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয় হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

print