FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

৩ জুন, ২০১৭ - ৬:১৬ অপরাহ্ণ

প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে ইন্টারনেট বন্ধ

internet

x

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : প্রবাদ আছে- কোনো জাতিকে ধ্বংস করতে হলে তার শিক্ষাকে ধ্বংস কর। আর শিক্ষাকে ধ্বংস করার প্রধান হাতিয়ার হচ্ছে প্রশ্নপত্র ফাঁস এবং নকল করা।

পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্ন ও ‍উত্তরপত্র অনলাইনে ফাঁস এবং নকল, বিভিন্ন দেশের সরকারের কাছে দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাড়িয়েছে।

সুষ্ঠ পরীক্ষা আয়োজনের প্রতিশ্রুতিতে ইথিওপিয়া সরকার কঠোর এক উদ্যোগ নিয়েছে। পরীক্ষার পুরো সপ্তাহটিতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট ব্যবস্থা। শুধু স্কুলে বা প্রতিটি শিক্ষার্থীদের নয়, বরঞ্চ সমগ্র দেশের নাগরিকদের জন্য ইন্টারনেট ব্যবহার বন্ধ রাখা হয়েছে।

দেশটিতে ৩১ মে থেকে ২ জুন পর্যন্ত গ্রেড ১০ পরীক্ষা (এসএসএসি পরীক্ষার সমতুল্য) এবং ৫ জুন থেকে ৮ জুন পর্যন্ত গ্রেড ১২ পরীক্ষা (এইচএসসি পরীক্ষার সমতুল্য) অনুষ্ঠিত হবে, তাই অন্তত ৮ জুন পর্যন্ত সকল ধরনের সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

ওয়াই-ফাই এবং সেলুলার- উভয় ইন্টারনেট ব্যবস্থা, পরীক্ষা উপলক্ষে এক সপ্তাহের বেশি সময় বন্ধ করা হয়েছে।

গত বছর দেশটিতে ১৬ এবং ১৮ বছর বয়সিদের প্রধান পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্ন ও উত্তরপত্র অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ায়, কয়েকটি আঞ্চলিক রাজ্যে পরীক্ষা বাতিল করে পুনঃপরীক্ষা গ্রহণের দাবী ওঠে। অনলাইনে প্রশ্ন ও উত্তরপত্র ফাঁস ও নকল প্রতিরোধ করতে তাই এবার ইন্টারনেটের ব্যবহার বন্ধ করে দিয়েছে দেশটির সরকার।

ইথিওপিয়ার সরকারি যোগাযোগ বিষয়ক কার্যালয়ের জনসংযোগ পরিচালক মোহাম্মদ সেড বলেন, ‘গত বছরের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধ করার লক্ষ্য সোশ্যাল মিডিয়া বন্ধের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ছাত্রদের পড়াশোনায় মনোনিবেশ এবং মানসিক চাপ মুক্ত রাখতে চাই আমরা।’

সরকারের পক্ষ থেকে শুধু সোশ্যাল মিডিয়া বন্ধ রাখার দাবী করা হলেও, ইথিওপিয়াজুড়েই ইন্টারনেটের সব কার্যক্রম ব্যাহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। কেবল ব্যাংকিং, এয়ারলাইন বুকিংয়ের এর মতো গুরুত্বপূর্ণ পরিষেবাগুলোতে কাজ করা যাচ্ছে। দূতাবাস ও আন্তজার্তিক সংস্থাগুলোর ইন্টারনেট ব্যবহার বন্ধ রাখা হয়নি।

print