FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৫ - ১:২৪ পূর্বাহ্ণ

নীলফামারীতে-মেয়র পদ ১ জন ও কাউন্সিলর পদে ৮ জনের মনোনয়ন প্রত্যাহার।

x

download1-284x160মহিনুল ইসলাম সুজন,নীলফামারী প্রতিনিধিঃ  নীলফামারীর দুই পৌরসভা নির্বাচনে এক মেয়র প্রার্থীসহ ৮ কাউন্সিলর প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করেছেন। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জিলহাস উদ্দিন জানান, রবিবার সকাল ৯টা থেকে শেষ সময় বিকালে ৫টা পর্যন্ত মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে নীলফামারীর জলঢাকা পৌরসভায় জাসদ (ইনু) সমর্থীত মেয়র প্রার্থী অধ্যাপক আজিজুল ইসলাম তার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। এ ছাড়া জলঢাকায় সংরক্ষিত নারী আসনে ১ জন,ওয়ার্ড কাউন্সিলর ৩জন প্রার্থী এবং সৈয়দপুর পৌরসভায় ওয়ার্ড কাউন্সিল পদের ৪ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে।

জলঢাকা পৌরসভায় মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দিতা করার জন্য ৭ জন প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেছিলেন। একজন মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেয়ায় এখন ৬জন মেয়র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতায় থাকলেন। এরা হলেন আব্দুল ওয়াহেদ বাহাদুর (আ.লীগ), বর্তমান মেয়র ইলিয়াস হোসেন বাবলু (বিদ্রোহী আ.লীগ), ফাহমিদ ফয়সাল কমেট চৌধুরী (বিএনপি), শাহ্ আব্দুল কাদের চৌধুরী বুলু (জাপা), জলঢাকা পৌর জামায়াতের আমীর আলহাজ্ব মকবুল হোসেন (স্বতন্ত্র), শরিফুল ইসলাম (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ)।

এছাড়াও উক্ত পৌরসভার ১,২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর শাহলুনা বেগম , ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সফিকুল ইসলাম,৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলার প্রার্থী সাদেকুল ইসলাম ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলার প্রার্থী সহ মোট ৪ জন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। ফলে এই পৌরসভায় সংরক্ষিত ৩টি নারী আসনে ১৪ জন ও ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলার পদে ৪২ জন প্রতিদ্বন্দি থাকলেন ।

অন্যদিকে বানিজ্যিক শহর হিসেবে পরিচিত সৈয়দপুর পৌরসভায় ৪ জন মেয়র প্রার্থী যথাক্রমে সাখাওয়াৎ হোসেন খোকন (আঃলীগ), আমজাদ হোসেন সরকার ভজে (বিএনপি), জয়নাল আবেদীন (জাতীয় পাটি) ও নুরুল হুদা (ইসলামী আন্দোলন) কেউ মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করেনি। তবে ৪ জন কাউন্সিল প্রার্থীর মধ্যে ২ নম্বর ওয়ার্ডের আনোয়ার হোসেন, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মোজাহারুল ইসলাম, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বেলাল আহমেদ এবং ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ইদ্রিস আলী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। ফলে এই পৌরসভায় সংরক্ষিত ৫টি নারী আসনে ১৮ জন ও ১৫টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলার পদে ৭২ জন প্রতিদ্বন্দি প্রার্থী থাকলেন।

print