FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

২৩ ডিসেম্বর, ২০১৫ - ২:০৩ অপরাহ্ণ

নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিত করুন

do

x

doসম্পাদকীয় ডেস্ক : একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে স্বাভাবিকভাবেই সবার প্রত্যাশা থাকে নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন হবে। কিন্তু পৌর নির্বাচনে ভোটগ্রহণের দিন যত এগিয়ে আসছে, সহিংসতা ততই বাড়ছে। নির্বাচন কেন্দ্র করে যে পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে, তা অত্যন্ত দুঃখজনক।
জানা গেছে, গত সোমবার ঢাকার সাভার, কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম, জামালপুরের সরিষাবাড়ী ও শরীয়তপুরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী আহত হন। সবচেয়ে বড় সহিংসতার ঘটনা ঘটে চৌদ্দগ্রামে। সেখানে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এ সময় উভয়প অর্ধশতাধিক গুলিবর্ষণ ও শতাধিক ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়। সন্ধ্যা পর্যন্ত থেমে থেমে চলে ধাওয়া পাল্টাধাওয়া। এ ঘটনায় দুজন গুলিবিদ্ধসহ ১০ জন আহত হন। এছাড়া যশোরের চৌগাছা ও শরীয়তপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে এবং জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। রোববার রাতে নরসিংদীর মাধবদী পৌরসভার এক মেয়র প্রার্থীর উঠান বৈঠকে ককটেল হামলার ঘটনা ঘটে। এতদিন অন্য দলের প্রার্থী-সমর্থকদের হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিল রাজনৈতিক দলগুলোর কর্মী-সমর্থকরা। এবার ঘরে-বাইরে সবখানেই আগুন লাগতে শুরু করেছে। রাজনৈতিক দলগুলোর মনোনীত ও বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা শুধু হুমকি-ধমকি নয়, পরস্পর সশস্ত্র সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছে। এদিকে নির্বাচনী এলাকাগুলোয় বেড়েছে সন্ত্রাসীদের আনাগোনা। ফলে সহসাই বড় ধরনের সহিংস ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছে। নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়া যখন একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, তখন যদি সহিংসতার কারণে প্রশ্নবিদ্ধ হয় তাহলে এর চেয়ে উদ্বেগজনক পরিস্থিতি আর কিছু হতে পারে না। তাই সময় থাকতেই সহিংসতা বন্ধ করে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। নির্বাচন মানে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেওয়া। আর তা যেন ঝুঁকিপূর্ণ না হয়, এটি নিশ্চিত করতে হবে রাষ্ট্রেরই।
সর্বোপরি পৌর নির্বাচন কেন্দ্র করে যারা সহিংসতা ঘটিয়েছে, তাদের চিহ্নিত করে শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। পৌর নির্বাচনও যদি সহিংসতার কবলে পড়ে প্রশ্নবিদ্ধ হয়, তাহলে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বাধাগ্রস্ত হবে। এতে তি হবে সরকারেরই। তাই বিষয়টি আমলে নিয়ে নির্বাচন সুষ্ঠু করতে ইতিবাচক পরিবেশ সৃষ্টিতে সর্বোচ্চ কঠোরতা অবলম্বন করবে সরকার এমনটিই আমাদের প্রত্যাশা।

print