FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

১৯ জুন, ২০১৬ - ৮:৪৪ অপরাহ্ণ

ধেয়ে আসছে প্রলয় ধ্বংস হয়ে যাবে পৃথিবী! (ভিডিও)

worlddestroy2

x

তোলপাড় ডেস্ক : মানব সভ্যতার বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে! শেষের সে দিন আর বেশি দেরি নেই। দ্রুত ধেয়ে আসছে মহাপ্রলয়। সেই প্রলয়েই যেকোনো মুহূর্তে ধ্বংস হয়ে যাবে পৃথিবী। সেইসঙ্গে পৃথিবীর অস্তিত্ব চিরতরে মাটির নিচে হারিয়ে যাবে।

এমন চূড়ান্ত সতর্কবার্তা দিয়েছে মার্কিন জিওলজিক্যাল সার্ভে। তারা জানায়, সম্প্রতি নেপালের ভয়াবহ ভূমিকম্পসহ গত কয়েক বছরে যে কম্পন অনুভুত হয়েছে, তার অন্তত ৩২ গুণ শক্তিশালী একটি ভূমিকম্প হতে চলেছে অদূর ভবিষ্যতেই। অর্থাত্‍ নেপালের কম্পনের মতো এরকম ৩২টি কম্পন মিলিয়ে যতটা শক্তিশালী হয়, সেরকমই ভূমিকম্প হবে শিগগিরই। সেই ভয়াবহ ভূমিকম্পে পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাবে।

বিশ্বের ভূমিকম্পপ্রবণ অঞ্চলগুলির একটি মানচিত্র তৈরি করেছে মার্কিন জিওলজিক্যাল সার্ভে। বিশেষ করে ওই শক্তিশালী ভূমিকম্পের তীব্রতায় সম্পূর্ণ নিশ্চিহ্ন হয়ে যাওয়া অঞ্চলগুলোর মধ্যে রয়েছে ভারতভূমিও। মার্কিন জিওলজিক্যাল সার্ভের রিপোর্ট বলছে, প্রবল ভূমিকম্পপ্রবণ এলাকাগুলোর মধ্যে রয়েছে নেপাল, ভারত-সহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বিস্তীর্ণ অংশ।

এছাড়াও মার্কিন জিওলজিক্যাল সার্ভে হাড়হিম করা আরো কিছু তথ্য দিয়েছে। সেগুলো হচ্ছে- নেপালে আবারও ভূমিকম্প হতে পারে। গত ফেব্রুয়ারিতেই এই সতর্কতা দিয়েছিল মার্কিন জিওলজিক্যাল সার্ভে। কিন্তু নেপাল সরকার বিষয়টিকে আমলে নেয়নি। সতর্কতামূলক ব্যবস্থাও নেয়নি।

রিপোর্ট বলছে, গত ২০৫ বছরের ইতিহাসে কাঠমান্ডুতে ঘটে যাওয়া ভূমিকম্প ছিল বিশ্বে পঞ্চম শক্তিশালী কম্পন।

এ বিষয়ে ভারতের ন্যাশনাল জিওফিজিক্যাল রিসার্চ ইন্সস্টিটিউটের প্রাক্তন ডিরেক্টর হর্ষ কে গুপ্তা বলেন, ‘২৭ এপ্রিল নেপালের ভূমিকম্প কিছুই নয়। আমরা জানি খুব শিগগিরই এমন কম্পন হতে চলেছে, যার তীব্রতায় ধ্বংস হয়ে যেতে পারে বিশ্বের একটা অংশ।’

এদিকে, পৃথিবীর ধ্বংস হতে আর বেশি দেরি নেই, এমনই বিশ্বাস করেন পৃথিবীর বাসিন্দাদের প্রতি সাতজনে একজন। আবার ধ্বংসের এই মহাপ্রলয় চলতি ২০১২ তেই সংঘটিত হবে এমন বিশ্বাস করেন প্রতি দশ জনে একজন।

সম্প্রতি পরিচালিত এক জরিপে এই তথ্য বেরিয়ে আসে। বিশ্বের নানাপ্রান্তের বিভিন্ন বয়স, শ্রেনী ও পেশার মানুষের মধ্যে পরিচালিত এই জরিপে অংশ নেওয়া ১৫ শতাংশ মানুষ মনে করেন পৃথিবী তাদের জীবদ্দশাতেই ধ্বংস হয়ে যাবে।

এর মধ্যে আবার দশ শতাংশই মনে করেন প্রাচীন মায়ান ক্যালেন্ডার অনুযায়ী আগামী ২১ ডিসেম্বরই পৃথিবীর শেষ দিন হতে যাচ্ছে। প্রায় ৫ হাজার ১২৫ বছর অতিক্রম করা প্রাচীন মায়া সভ্যতার ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ২১ ডিসেম্বর তারিখেই পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যাওয়ার কথা।

জরিপ পরিচালনাকারী সংস্থা ইপসস গ্লোবাল পাবলিক অ্যাফেয়ার্সের গবেষণা ব্যবস্থাপক কেরেন গটফ্রেড রয়টার্সকে এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘খোদায়ী কুদরতই হোক কিংবা প্রাকৃতিক বিপর্যয় অথবা রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব যে কারণই হোক না কেন পৃথিবীর প্রতি সাতজনের একজনই বিশ্বাস করে পৃথিবীর সমাপ্তি ঘনিয়ে আসছে।

পৃথিবীর ধ্বংস হতে আর বেশি দেরি নেই এই সংশ্লিষ্ট একটি ভিডিও পাঠকদের জন্য দেওয়া হলো-

print