FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

৯ আগস্ট, ২০১৭ - ৫:১৯ অপরাহ্ণ

খাদ্যে বিষক্রিয়ায় হাসপাতালে ৩২ ছাত্রী

image-94585-1502261596

x

নোয়াখালী প্রতিনিধি: খাদ্যে বিষক্রিয়ায় নোয়াখালী নার্সিং ইনস্টিটিউটের প্রথম বর্ষের ৩২ জন ছাত্রী ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। আজ বুধবার সকালে অসুস্থ শিক্ষার্থীদের নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অসুস্থ শিক্ষার্থীরা হলেন- দিলরুবা, সুমী, মুন্নী, তামান্না, মেরী নাজমীন, সুমীসহ ৩০জন। এদের প্রত্যেকের বয়স ১৯ বছর।

সূত্রে জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে নার্স প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রথম বর্ষের কয়েকজন শিক্ষার্থীর পেট ব্যথা ও বমি শুরু হয়। বুধবার সকাল ১০টা নাগাদ অসুস্থের সংখ্যা বাড়তে থাকে। পরে অসুস্থ অবস্থায় ৩০ শিক্ষার্থীকে দ্রুত উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, ইনস্টিটিউটের হোস্টেলের ডাইনিংয়ে মাছ দিয়ে রান্না করা ব্যঞ্জন খেয়ে তারা আজ ভোরে অসুস্থ হয়ে পড়েন।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ডা. আজিম জানান, সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ২৭ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং পাঁচজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, খাদ্যে বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন ছাত্রীরা। আক্রান্ত ছাত্রীদের মধ্যে দুজনের অবস্থা গুরুতর। তবে বর্তমানে তাদের অবস্থা উন্নতির দিকে রয়েছে।

নার্সিং ইনস্টিটিউটের তত্ত্বাবধায়ক বেবি সুলতানা জানান, ভোররাত থেকে হোস্টেলের প্রথম বর্ষের ছাত্রীদের একে একে পাতলা পায়খানা ও বমি হতে থাকে। পরে তারা অসুস্থ ছাত্রীদের দ্রুত জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হোস্টেলের ডাইনিংয়ের খাবারে সমস্যা হলে ইনস্টিটিউটের ছয়টি ব্যাচের ছাত্রীরাই আক্রান্ত হত। কিন্তু আক্রান্ত সবাই প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। ওই শিক্ষার্থীরা বাইরে থেকে আনা অন্য কোনো খাবার খেয়ে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হতে পারেন বলে তিনি ধারণা করছেন।

বেবি সুলতানা বলেন, চিকিৎসা নিয়ে ব্যস্ত থাকার কারণে এ বিষয়ে এখনো ভালোভাবে খোঁজখবর নেওয়া হয়নি।

এদিকে ঘটনার তদন্তে হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ফরিদউদ্দিনকে প্রধান করে তিন সদস্যের কমিটি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নোয়াখালী সদর হাসপাতালে তত্ত্বাবধায়ক ডা. শামসুল করিম।

print