FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

৩ জুন, ২০১৬ - ১২:১৬ অপরাহ্ণ

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় ‘আনারস’ নিয়ে দাপটে আ.লীগের বিদ্রোহীরা

ইউপি

x


কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি :
কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার নয়টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) মধ্যে সাতটিতেই আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী রয়েছেন। এর মধ্যে ছয়জনই পেয়েছেন আনারস প্রতীক। তাঁদের দাপটে কোণঠাসা দলীয় প্রতীক নৌকার প্রার্থীরা।
আনারস প্রতীক পাওয়া প্রার্থীরা হলেন জাংগালিয়ায় বর্তমান চেয়ারম্যান আবদুস ছাত্তার, চরফরাদীতে মো. সোহরাব উদ্দিন, বুরুদিয়ায় নাজমুল হুদা, পাটুয়াভাঙ্গায় বর্তমান চেয়ারম্যান মো. জালাল উদ্দিন, চণ্ডীপাশায় শামছুদ্দিন এবং সুখিয়া ইউপিতে মো. আজিজুল হক।
দলীয় সূত্রে জানা যায়, আওয়ামী লীগের এসব নেতা কোমর বেঁধে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন। দলের কিছু প্রভাবশালী নেতাও তাঁদের পক্ষে রয়েছেন।
জাংগালিয়া ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আবদুস ছাত্তার বলেন, ‘দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে আমি বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছি। তবে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগের এক প্রভাবশালী নেতা সাত দিন ধরে আমাকে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছেন।’
তবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সরকার শামীম আহমেদের ভাষ্য, বরং তিনিই বিদ্রোহী প্রার্থীর হুমকিতে উৎকণ্ঠায় রয়েছেন। তিনি বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থী ভোটের দিন চর এলাকার তিনটি কেন্দ্র দখলের চিন্তাভাবনা করছেন।
দলীয় কোন্দলের কারণেই বিদ্রোহী প্রার্থীরা দাপট দেখাতে পারছেন বলে স্বীকার করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম আহ্বায়ক ও উপজেলা চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম (রেনু)। তিনি বলেন, এ সবকিছুই হচ্ছে স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. সোহরাব উদ্দিনের নির্দেশে। ওনার পছন্দের না হওয়ায় নৌকার প্রার্থীদের হারানোর চেষ্টা চলছে।
অভিযোগের বিষয়ে বক্তব্য জানতে সাংসদ সোহরাব উদ্দিনের মুঠোফোনে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করে নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

print