FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ - ৬:৩৩ অপরাহ্ণ

এসডিজি বাস্তবায়নে বাংলাদেশ এগিয়ে

sofiul20170911181310

x

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : এসডিজি বাস্তবায়নে তথা টেকসই ‍উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনে অনেক দেশকে পেছনে ফেলে বাংলাদেশ এগিয়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক নিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে একথা বলেন তিনি।

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিপরিষদের নিয়মিত বৈঠকে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনে বাংলাদেশ সরকারের প্রস্তুতি সম্পর্কে মন্ত্রিসভাকে অবহিত করা হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এসডিজি বাস্তবায়নে আমাদের অগ্রগতি আশাব্যঞ্জক। আল্লাহর রহমতে পৃথিবীর অনেক দেশের তুলনায় আমরা এগিয়ে রয়েছি।

তিনি বলেন, আমাদের ১৭টি লক্ষ্য অর্জনে আমরা কাজ করছি। কয়েক দিন আগে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে ভলান্টারি ন্যাশনাল রিভিউ রিপোর্ট আমরা স্বপ্রণোদিত হয়ে দিয়েছি। ৪২টি দেশের মধ্যে আমরাও ছিলাম। আমরা এজন্য আলাদা অফিস নিয়েছি। আমাদের কাজগুলো মন্ত্রণালয়ভিত্তিক সুনির্দিষ্টভাবে সূচক ও লক্ষ্যসমূহ তুলে ধরে বই আকারে জমা দেওয়া হয়েছে।

২০১৫ সালে এমডিজির নির্ধারিত ১৫ বছরের মেয়াদ শেষ হয়েছে। এসডিজি হলো গত ১৫ বছরে প্রচলিত এমডিজির সম্প্রসারিত ও হালনাগাদ রূপ। এতে টেকসই উন্নয়নকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। ধনী এবং গরিব সব দেশকেই যথাযথভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

সংক্ষেপে এসডিজি হলো ১৭টি লক্ষ্য বাস্তবায়ন। তা হলো- ১. দারিদ্র্য বিমোচন; ২. ক্ষুধামুক্তি; ৩. সুস্বাস্থ্য; ৪. মানসম্মত শিক্ষা; ৫. জেন্ডার সমতা; ৬. বিশুদ্ধ পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন; ৭. ব্যয়সাধ্য ও টেকসই জ্বালানি; ৮. সবার জন্য ভালো কর্মসংস্থান; ৯. উদ্ভাবন ও উন্নত অবকাঠামো; ১০. বৈষম্য হ্রাসকরণ; ১১. টেকসই শহর ও সম্প্রদায়; ১২. (সম্পদের) দায়িত্বশীল ব্যবহার; ১৩. জলবায়ু পরিবর্তন প্রতিরোধ; ১৪. সমুদ্রের সুরক্ষা; ১৫. ভূমির সুরক্ষা; ১৬. শান্তি ও ন্যায়বিচার; ১৭. লক্ষ্য অর্জনের জন্য অংশিদারিত্ব।

এই ১৭টি লক্ষ্য ২০৩০ সালের মধ্যে বাস্তবায়ন করার জন্য বিশ্বের প্রায় সব দেশ একমত হয়েছে জাতিসংঘের এক সাধারণ সভায়। বাংলাদেশও সেখানে রয়েছে।

মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে গত ২১ এপ্রিল থেকে ২ মে শিল্পমন্ত্রীর রাশিয়া, জার্মানি ও যুক্তরাজ্য সফর, গত ৪ থেকে ৬ জুন জিটুজি প্রক্রিয়ায় সার আমদানির জন্য শিল্পমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের কাতার সফর, গত ১ আগস্ট তারিখে ইস্তাম্বুলে অনুষ্ঠিত ইসলামি সহযোগিতা সংস্থার নির্বাহী কমিটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বিশেষ সভায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ সফর সম্পর্কে মন্ত্রিসভাকে অবহিত করা হয়।

print