FaceBook twitter Google plus utube RSS Feed
  

২৮ মার্চ, ২০১৬ - ১০:২১ অপরাহ্ণ

এখনও আলমগীর ও রুনা লায়লার গভির প্রেম…

l

x

বিনোদন প্রতিবেদক : তারা দু’জনই স্ব-স্ব ক্ষেত্রে মহাতারকা। একজন অভিনয়ে দেশজোড়া মানুষের চোখের মনি, অপরজন সংগীতে খ্যাতি পেয়েছেন বিশ্বজোড়া। আর এই তারকা দম্পতি হচ্ছেন আলমগীর ও রুনা লায়লা। ২৬ মার্চ ছিলো এই দম্পতির বিবাহবার্ষিকী। দীর্ঘ পথ চলায় একটুও কমেনি তাদের ভালোবাসা। ম্যারেজ ডে তে দু’জন ডিনার করেছেন একসঙ্গে। হোক প্লাস্টিকের তবু রুনার হাতে ফুল তুলে দিয়েছেন নায়ক আলমগীর। আবার সে ছবি ফেনবুকে প্রকাশ করেছেন রুনা লায়লা। শুধু তাই নয় প্রোফাইল পিকচারেও এঁটেছেন নিজেদের ভালোবাসার মুহুর্তটিকে।

কেমন তাদের প্রেম? এক সাক্ষাৎকারে কি বলেছিলেন দু’জন শুনুন। আলমগীর বললেন, আমার কাছে ভালোবাসার অপর নাম বিশ্বাস। ভালোবাসা শুধু প্রেমিক-প্রেমিকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ তা কিন্তু নয়। ভালোবাসার পরিধি ব্যাপক। আমার দুই নাতনীকে আমি খুব ভালোবাসি। তাদের প্রতিও আমার ভালোবাসা কাজ করে। রুনা লায়লা বললেন, ‘ভালোবাসা মানে হলো একে অন্যের প্রতি সম্মান। একজন মানুষের প্রতি আমার সম্মান না থাকলে ভালোবাসাও জন্মায় না। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তাদের দেখা হতো। এ প্রসঙ্গে রুনা লায়লা জানালেন, আমি যেহেতু প্লেব্যাক করি, সেহেতু বিভিন্ন গানের রেকর্ডিংয়ে থাকত ও, সেখানেই সাক্ষাত্ হতো। তবে ‘শিল্পী’ চলচ্চিত্রে কাজ করতে গিয়ে ঘনিষ্ঠ হই আমরা। আর আলমগীরের ভাষ্যে, প্রথম দেখাতেই প্রেম কথাটা আমাদের ক্ষেত্রে ঘটেনি। তবে ভালোলাগা শুরু থেকেই ছিল। সেখান থেকেই ভালোবাসা।

১৯৯৯ সালে বিয়ে করেন তারা। যদিও এটিই তাদের প্রথম সংসার নয়। এ কথা সবারই জানা। রুনা লায়লার জীবনী নিয়ে তৈরি একটি সিনেমার ফ্লোরে দুজনের ঘনিষ্টতা সৃষ্টি হয়। এর ফলশ্রুতিতে আলমগীর তার দীর্ঘদিনের সংসারের সমাপ্তি ঘটিয়ে রুনা লায়লার সঙ্গে দ্বিতীয়বারের মতো গাঁটছড়া বাধেন। রুনা লায়লার অবশ্য এটি চতুর্থ বিয়ে। এর আগে তিনি খাজা জাভেদ কায়সার. মাইদুল ইসলাম এবং সুইস নাগরিক রন ড্যানিল্যান্ডকে বিয়ে করেন। রুনার তানি লায়লা নামে এক মেয়ে আছে। স্ত্রী খোশনুরের সঙ্গে আরমগীরের ৪ সন্তান আছে।

print